কোরবানি | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

 



কোরবানি

দেওয়ান মোঃ ছাইফুদ্দিন


ইবরাহিমের স্বপ্নে দেখা দিলেন দয়াময়

প্রিয়বস্তু সঁপে দিয়ে করো প্রভুর মন জয়৷

চিন্তার রেশ ললাটে তাঁহার 

ঘুরেফিরে প্রতিক্ষণে

কত বস্তু কত প্রিয়জন দানিব কোনটা বিনে?


লাগাতার খোয়াব দেখিতে লাগিলেন

কাটেনি শঙ্কা-ভয়

অবশেষে ঘোর কাটিল আপোষে করিবে

সবচেয়ে প্রিয় ক্ষয়৷

ইসমাঈলের চাইতে কেবা

হতে পারে প্রিয়জন

অনেক যাচনা-সাধনার ফল ছোট্ট পুত্রধন৷


অটল নবী হুকুম খোদার জান দিবে কোরবানি

হোক না সেটা নিজের বেটা তবু কেন হয়রানি!

বৎস আমার! খোদার হুকুম পালন করিবে তুমি

কোনো ইচ্ছা শেষ কিচ্ছা-

আছে কি তোমার শুনি?

শিশুনবী কহে, প্রভু আমায় বেছে নিয়ে সন্তুষ্ট

বিধাতার তরে প্রাণ সঁপিবো 

কতই না সুমিষ্ট!

দৃঢ়চিত্তের কথা শুনিয়া বাবা হলেন আহ্লাদ

একেই বলে অমূল্য ধন নবীর আওলাদ৷


হাজেরা বিবি অশ্রুজলে সাজিয়া ইসমাঈল

মিনার ময়দান যাবে প্রস্তুত হলেন ইবরাহিম৷

যাত্রা শুরু করিলেন উভয়

নেই কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব

পথিমধ্যে কর্ণকুহরে বীষ ঢেলে ইবলিশ

পুত্রকে আজ আটক করিতে ইন্দ্রজালের মন্দ৷

অটল অবিচল দৃঢ় পদধ্বনি হাঁকাতে ইসমাঈল

টনক নড়েনি কিঞ্চিত, ছুড়ে দুষ্টের পিঠে ঢিল৷

সেই হতে আজো হজ্জ্ব কাফেলা

ছুড়ে ইবলিশ গর্দানে

করে প্রস্তরাঘাতে অসুর দমন

মিনারের ময়দানে৷


হাতে খঞ্জর দেহপিঞ্জর প্রাণবায়ু যাবে উড়ে

রবের হুকুম- ঈমান পোক্ত 

উভয় অবিচল দাঁড়িয়ে৷

হাত-পা, চোখে শক্ত বাঁধন পুত্র শোয়ায়ে

দিবে বিসর্জন বিধাতার তরে

সন্তোষ বিনিময়ে৷

তাকবীর ধ্বনি আল্লাহু আকবার 

জিগির সগৌরবে

হস্তবলে খঞ্জর তলে প্রিয়পুত্রের গ্রীবাদেশ

ত্যাগের মহীমা উদ্ভাসিত

শুধু বিধাতার ধ্বনি রবে৷


যাও যাও মালাইক! বেহেশত হতে

আনিয়া দাও গো হাইওয়ান

আরশ কাঁপিয়া বলিলেন খোদা-

নবীকে করোনা পেরেশান

পূর্ণ করেছে পরীক্ষা আমার

বলি হইবেনা ইনসান৷


জীবরাইল ছুটে এক নিমিষে হাজির পয়গম্বর

স্বর্গ হতে দুম্বা সমেত ইসমাঈল পরিবর্তে

একটি পশমও পড়েনি কাটা হতে দেহচত্বর

কোরবানি হলো স্বর্গপশু হুকুম অবিনশ্বর৷

সেই হতে ইসমাঈলকে ডাকিলেন আল্লাহ

আত্মত্যাগের এক গৌরব নাম 'যবিহুল্লাহ'৷

ইবরাহিম ডাকে প্রভু আমার!

তোমার তরেই সব

যেদিন তুমি বাঁচিয়েছো জান

হতে নমরুদ অগ্ন্যুৎসব৷

আল্লাহ বলেন, উঠো উঠো নবী

কেঁদোনা তুমি আর

পুত্র বিসর্জন কবুল হল রবে ইতিহাস উপমার৷


আমার জন্যে ত্যাগ করেছো

দিয়ে প্রিয়ধন কোরবানি

এই অসিয়ত পূরণ করিবে পরের বংশধ্বনি৷

আজ হতে চিরঅম্লান রবে

ত্যাগের এই মহিমা

স্বর্গপুষ্ট হবে তারা আত্মত্যাগে বলীয়ান যারা

স্মরণ করিবে উপমা৷

সেই হতে আজো সগৌরবে রয়েছে এই রীতি

ঈদুল আযহা নিয়ে আসে সৌহার্দ্য-সম্প্রীতি৷