ভুলক্রমে কিছু খেয়ে ফেললে কি রোজা ভাঙবে? | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

ভুলক্রমে খেলে রোজা ভাঙবে না

রোজাদার ভুলক্রমে কিছু খেয়ে ফেললেও তার রোজা ভাঙে না। এ মর্মে হজরত আবু হুরাইরা রদিয়াল্লাহু তাআলা আনহু বলেন, আল্লাহর রসুল ﷺ ইরশাদ করেছেন, যদি কোন ব্যক্তি ভুলক্রমে কিছু পানাহার করে ফেলে, তাহলে সে যেন (রোজা না ভেঙে) রোজা পূর্ণ করে নেয়। কেননা, স্বয়ং আল্লাহ তাআলাই তাকে পানাহার করিয়েছেন। (সহিহ বুখারি, খণ্ড : ৩, পৃষ্ঠা : ২৯১, হাদিস নম্বর : ১৮৩১)।

হজরত আবু হুরাইরা রদিয়াল্লাহু তাআলা আনহু আল্লাহর রসুল ﷺ হতে বর্ণনা করেছেন, যে ব্যক্তি রোজা রেখেছে আর ভুলক্রমে কিছু খেয়ে ফেলেছে, তাহলে তার উচিৎ, যেন রোজা রেখে দেয়। কেননা, তাকে আল্লাহ তাআলাই পানাহার করিয়েছেন। (সহিহ মুসলিম, খণ্ড : ২, পৃষ্ঠা : ৭৬, হাদিস নম্বর : ২৬১২)।

অন্যত্র বর্ণিত হয়েছে, হজরত আবু হুরাইরা রদিয়াল্লাহু তাআলা আনহু বলেন, আল্লাহর রসুল ﷺ বলেছেন, যে ব্যক্তি ভুল করে খেয়েছে অথবা পান করেছে, সে যেন রোজা না ভাঙে। এ হচ্ছে রিজিক, যা আল্লাহ তাআলা তাকে দান করেছেন। (জামে আত তিরমিজি, খণ্ড : ১, পৃষ্ঠা : ৩৯৫, হাদিস নম্বর : ৬৬৯)।

হজরত আবু হুরাইরা রদিয়াল্লাহু তাআলা আনহু বর্ণনা করেন, এক ব্যক্তি আল্লাহর রসুল ﷺ -এঁর দরবারে উপস্থিত হয়ে জিজ্ঞাস করেন, হে আল্লাহর রসুল, আমি ভুলে পানাহার করে ফেলেছি, অথচ আমি রোজা অবস্থায় ছিলাম। তিনি ﷺ ইরশাদ করেন, তোমাকে পানাহার করিয়েছেন স্বয়ং আল্লাহ তাআলা। (সুনানে আবু দাউদ, খণ্ড : ২, পৃষ্ঠা : ২৪১, হাদিস নম্বর : ১২৫২)।

হজরত আবু হুরাইরা রদিয়াল্লাহু তাআলা হতে বর্ণিত রয়েছে, আল্লাহর রসুল ﷺ ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি রোজা অবস্থায় ভুল করে খেয়ে ফেলেছে, তার উচিৎ, রোজা পূর্ণ করা। কেননা, তাকে খাইয়েছেন খোদা আল্লাহ তাআলাই। (সুনানে ইবনে মাজাহ, খণ্ড : ১, পৃষ্ঠা : ৪৬৪, হাদিস নম্বর : ১৭৩৭)।

হজরত আবু হুরাইরা রদিয়াল্লাহু তাআলা আনহু হতে বর্ণিত, আল্লাহর রসুল ﷺ ইরশাদ করেন, যদি রোজা অবস্থায় কেউ ভুল করে কিছু খেয়ে ফেলে, তাহলে তার কর্তব্য, রোজা রাখা। কেননা, তাকে পানাহার করিয়েছেন আল্লাহ তাআলা নিজেই। (মিশকাতুল মাসাবিহ, খণ্ড : ১, পৃষ্ঠা : ৪৩৪, হাদিস নম্বর : ১৯০৫)।

জ্ঞাতব্য :
যদি কোনো রোজাদার ভুলক্রমে কিছু খেতে থাকে এবং তৎক্ষণাৎ তার মনে পড়ে যায়, যে, সে রোজা রেখেছিল, তাহলে তার হাতে এবং মুখে থাকা অবশিষ্ট খাবার যেন আর না খায়। কেননা, স্মরণ হবার পরে যদি মুখের খাবার গিলে ফেলে, তাহলে রোজা ভেঙে যাবে। কিন্তু, স্মরণ না থাকা কালীন খেয়ে ফেলা খাবারের কারণে রোজা ভাঙবে না।

বই : হাদিসের আলোকে রোজার মাসআলা
সংকলক : সুলতান সাঈদ