আল্লাহর সত্তা সৃষ্টির অন্য বস্তুর ন্যায় নয় | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

আল্লাহর সত্তা সৃষ্টির অন্য বস্তুর ন্যায় নয়।



বস্তু অর্থ, যার অস্তিত্ব শরীর ও উপাদান বিহীন এবং পর নির্ভরশীল বিহীন অস্তিত্ব বিদ্যমান। جــســم  (শরীর) جـوهر  (যার অস্তিত্ব অন্যের মাধ্যমে নয়) ও عرض (যার অস্তিত্ব অন্যের ওপর নির্ভরশীল) ব্যতীত বিদ্যমান। তাঁর কোন সীমারেখা, প্রতিপক্ষ, বিপরীত এবং সমকক্ষও নেই। তিনি কোন বিশেষ স্থানে অবস্থান করেন না এবং কালের হিসেবও তাঁর ওপর চলে না। তাঁর হাত, মুখ ও সত্তা আছে যেভাবে আল্লাহ্ তাআলা পবিত্র কোরআনে উলেখ করেছেন। কোন ধরণের রূপরেখা বিহীন তাঁর এ গুণাবলী।



     الْـمَخْلُوْقَاتِ . لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَـكُـنْ بَاقِيًّا لَكَانَ فَانِيًا وَلَوْ كَانَ فَانِيًا لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ . قَالَ سُبْحَانَـهُ وَتَعَالٰى هُوَ الْاَوَّلُ وَالْاٰخِـرُ وَقَالَ تَعَالٰى : وَيَبْقٰـى وَجْهُ رَبِّكَ اَىْ ذَاتُـهُ .


هُـوَ شَيْـئٌ لَا كَالْاَشْـيَاءِ ؟

وَهُوَ شَيْـئٌ لَا كَالْاَشْيَاءِ وَمَعْـنَـى الشَّيْئٍ اِثْبَاتُهُ بِلَا جِسْمٍ وَجَوْهَرٍ وَلَا عَـرْضٍ وَلَا حَـدَّ لَهُ وَلَا ضِدَّلَـهُ وَلَا نِدَّلَهُ وَلَا مِثْلَ لَهُ وَلَا يَـتَمَكَّـنُ فِـىْ مَـكَانٍ وَلَا يَـجْرِىْ عَلَيْهِ زَمَـاَنٌ وَلَهُ يَـدٌ وَوَجْـهٌ وَنَفْسٌ كَـمَـا ذَكَــرَهُ للهُ تَعَـالٰـى فِـىْ الْـقُـرْآنِ فَـهِـىَ صِـفَاتٌ بِـلَا كَـيْـفٍ، وَلَا يُـقَـالُ اَنَّ يَـــدَهُ قُـــدْرَتَـهُ اَوْ نِــعْـمَـــتَـهُ، لِاَنَّ فِـيْـهِ


একথা বলা যাবে না তাঁর হাত মানে শক্তি বা নিয়ামত। কেননা এতে তাঁর গুণাবলী বাতিল হয়ে যাবে। ইহা ক্বদরিয়া ও মুতাজিলাদের অভিমত। কিন্তু তাঁর হাত মানে হল রূপরেখাবিহীন গুণ। তাঁর ক্রোধ ও সন্তুষ্টিও রূপরেখা বিহীন দুটি গুণ। কোরআন কালামে নফসী হিসেবে সৃষ্ট নয়, তবে উহার নির্দেশনা মতে আমাদের কর্মসমূহ সৃষ্ট। অনুরূপভাবে ঈমানও সৃষ্ট নয়, এতে আমাদের আমলসমূহ সৃষ্ট।


❏ আল্লাহ্ তাআলার সত্তা অপরিবর্তনীয় অর্থ কি❓

আল্লাহ্ তাআলার সত্তা অপরিবর্তনীয় ও অবিনশ্বর হওয়ার অর্থ- নিশ্চয় সত্তায়, গুণাবলীতে ও কর্মে কেউ তাঁর সাদৃশ্য নয়।



  اِبْـطَـالَ الصِّفَةِ وَهُوَ قَوْلُ اَهْلِ الْقَدْرِ، وَالْاِعْتِزَالِ، وَلٰكِنْ يَدُهُ صُـفَـةٌ بِلَا كَيْفٍ، وَغَـضَبُـهُ وَرِضَاهُ صِـفَـتَانِ بِلَا كَيْفِ، وَالْقُرْآنُ غَـيْـرُ مَخْـلُـوْقِ، اَىْ كَـلَامُ نَفْسِـىٌّ وَفِـعْلُـنَـا بِهِ مَخْـلُـوْقٌ وَكَذَا الْاِيْـمَانُ غَيْرُ مَخْلُوْقٍ وَفِعْلُنَا بِه مَخْلُوْقٌ .


مَا مَعْنٰـى مُخَالَفَتِه تَعَالٰى لِلْحَوَادِثِ؟

مَعْنٰى مُخَالَفَتِه تَعَالٰى لِلْحَوَادِثِ اَنَّ اللهَ لَيْسَ مَمَاثِـلًا لَهَا فِـىْ ذَاتِـه وَلَا فِـىْ صِفَاتِـه، وَلَا فِـىْ اَفْعَالِـه . 


مَا الدَّلِيْلُ عَلٰى مُخَالَفَتِه تَعَالٰى لِلْحَوَادِثِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وُجُوْدُ هٰذِه الْمَخْلُوْقَـاتِ لِاَنَّـهُ لَـوْ لَمْ يَـكُـنْ مُـخَالِـفًا لِلْـحَوَادِثِ لَـكَانَ مَـمَاثِـلًا لَهُمْ وَلَـوْ كَـانَ مَـمَاثِلًا لَـهُمْ لَـمْ


❏ আল্লাহ্ তাআলার সত্তা অপরিবর্তনীয় এর প্রমাণ কি❓

এর দলীল এ সৃষ্টি জগতের   অস্তিত্ব। কেননা তিনি অবিনশ্বর ও অপরিবর্তনীয় না হলে, অবশ্যই তাদের মুমাছিল বা সাদৃশ্য হতেন।যদি তাদের সাদৃশ্য হন তাহলে বিদ্যমান সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই অস্তিত্ব লাভে সক্ষম হত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন-তাঁর সাদৃশ্য কোন বস্তুই নেই।"

➥আল-কুরআন, সূরা শূরা, আয়াত: ১১


❏ আল্লাহ্ তাআলা স্বয়ং বিদ্যমান হওয়ার অর্থ কি❓

আল্লাহ্ তাআলা স্বয়ং বিদ্যমান বলতে তিনি অবস্থান করার জন্যে নির্দিষ্ট কোন স্থানের মুখাপেক্ষী নহেন। তিনি এমন বিশেষণও নহেন যা বিশেষিতের প্রতি মুখাপেক্ষী হয় এবং তিনি তাঁর অস্তিত্বের ব্যাপারে কোন সৃষ্টির মুখাপেক্ষীও নহেন।


❏ আল্লাহ্ তাআলা স্বয়ং বিদ্যমান হওয়ার প্রমাণ কি❓

সৃষ্টি জগতের অস্তিত্বই হচ্ছে আল্লাহ তাআলা স্বয়ং বিদ্যমান হওয়ার দলীল। কেননা তিনি স্বয়ং বিদ্যমান না হলে অবশ্যই মুখাপেক্ষী হতেন। মুখাপেক্ষী হলেই বিদ্যমান সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই অস্তিত্ব লাভে সক্ষম হত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন-আল্লাহ্ এমন সত্তা যিনি ব্যতীত অন্য কোন মাবুদ নেই, তিনি চিরঞ্জীব চির বিদ্যমান।➥আল-কুরআন, সূরা বাক্বারা, আয়াত: ২৫৫



 يُوْجَـدْ شَـيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْـمَخْلُوْقَاتِ وَقَالَ تَعَالٰى : لَيْسَ كَمِثْلِـه شَيْئٌ .


مَا مَعْنٰى قِيَامِه تَعَالٰى بِنَفْسِـه ؟

مَعْنٰى قِيَامِه تَعَالٰى بِنَفْسِه اَنَّهُ لَيْسَ مُحْتَاجًا اِلٰى مَحَلٍّ يَقُوْمُ بِـه أَىْ لَيْسَ صِفَةً وَلَيْسَ مُحْتَاجًا اِلٰى مُوْجِدٍ يُـوْجِـدُهُ .


مَا الدَّلِيْلُ عَلٰى قِيَامِه تَعَالٰـى بِنَفْسِه ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَكُنْ قَائِمًا بِنَفْسِه لَكَانَ مُحْتَاجًا، وَلَوْ كَانَ مُحْتَاجًا لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ وَقَالَ اللهُ تَعَالٰى : اَللهُ لَا اِلٰهَ اِلَّاهُوَ الْـحَـىُّ الْقَيُّـوْمُ .


❏ একত্ববাদের অর্থ কি❓

একত্ববাদের অর্থ, আল্লাহ্ তাআলা তাঁর সত্তায়, বিশেষণে ও কর্মে একক ও অদ্বিতীয়।


❏ আল্লাহ্ তাআলা তাঁর সত্তায় একক এর অর্থ কি❓

এর অর্থ হচ্ছে, আল্লাহ্ তাআলা সংখ্যায় একাধিক নহেন। তাঁর সত্তা একাধিক অংশের সমন্বয়ে গঠিতও নয়।


❏ আল্লাহ্ তাআলা তাঁর গুণাবলীতে একক এর অর্থ কি❓

এর অর্থ হচ্ছে, আল্লাহ্ তাআলার বিশেষণসমূহে বহু সংখ্যকের অংশীদারিত্ব নেই। তাঁর গুণাবলী ও বিশেষণতুল্য করো গুণাবলী ও বিশেষণও নেই।


❏ আল্লাহ্ তাআলা তাঁর কর্মে একক বা অদ্বিতীয় অর্থ কি❓

এর অর্থ হচ্ছে, আল্লাহ্ তাআলা ব্যতীত কোন কর্মের সৃষ্টি ও উদ্ভাবক হিসেবে অন্যজনের কোন কর্ম নেই। তবে অন্যের দিকে কর্মকে অর্জন করা ও ইচ্ছাধীন হিসেবে সম্বন্ধ করা যায়।


 مَا مَعْنَـى الْوَحْدَا نِـيَّـةِ ؟

مَعْنَى الْوَحْدَانِيَّةِ اَنَّ اللهَ تَعَالٰى وَاحِدٌ فِىْ ذَاتِه وَفِىْ صِفَاتِه وَفِىْ اَفْعَالِه

مَا مَعْنٰى كَوْنِه تَعَالٰى وَاحِدًا فِىْ ذَاتِه؟

مَعْنَاهُ اَنَّ اللهَ تَعَالٰى لَيْسَ مُتَعَدِّدًا وَلَيْسَتْ ذَاتُهُ مُرَكَّبَةً مِنْ اَجْزَاءٍ .


مَا مَعْنٰى كَوْنِه تَعَالٰى وَاحِدًا فِىْ صَفَاتِه؟

مَعْنَاهُ اَنَّهُ لَيْسَ لِصِفَاتِه تَعَالٰى تَعَدُّدٌ وَلَيْسِ لِغَيْرِه صِفَةٌ كَصِفَتِه.


مَا مَعْنٰى كَوْنِه تَعَالٰى وَاحِدًا فِىْ اَفْعَالِه؟

مَعْنَاهُ اَنَّهُ لَيْسَ لِغَيْرِه تَعَالٰى فِعْلٌ مِنَ الْاَفْعَالِ عَلٰى وَجْهِ الْاِيْجَادِ وَاِنَّمَا يُنْسَبُ ذٰلِكَ الْفِعْلُ لِلْغَيْرِ عَلٰى وَجْهِ الْكَسَبِ وَالْاِخْتِيَارِ.

مَا الدَّلِيْلُ عَلٰى الْوَحْدَانِـيَّـةِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِهِ


❏ একত্ববাদের প্রমাণ কি❓

একত্ববাদের দলীল হল, বিদ্যমান এ সৃষ্টি জগতের অস্তিত্ব। কেননা আল্লাহ্ তাআলা যদি একক না হতেন, তাহলে একাধিক হতেন। আর যদি একাধিক হতেন তাহলে সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই অস্তিত্ব লাভ করত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন,আপনি বলুন, আল্লাহ্ একক, অদ্বিতীয়।➥আল-কুরআন, সূরা ইখলাস, আয়াত: ১


❏ তিনি আরো বলেন-যদি নভোমন্ডল ও ভূমন্ডলে আল্লাহ্ ব্যতীত অন্য কোন উপাস্য থাকত, তবে অবশ্যই উভয়ই ধ্বংস হয়ে যেতো।"

➥আল-কুরআন, সূরা আম্বিয়া, আয়াত: ২২


❏ আল্লাহ'র কুদরত বলতে কি বুঝ❓

কুদরত বা শক্তি আল্লাহ্ তাআলার সত্তা সংশিষ্ট ও অবিচ্ছেদ্য একটি স্থায়ী গুণ বা বিশেষণ। যদ্বারা প্রত্যেক সম্ভাব্য বিষয়াদির অস্তিত্ব প্রদান করেন। কিংবা বিলুপ্তি সাধন তার ইচ্ছের ওপর নির্ভরশীল। আমাদের থেকে যদি চোখের আবরণ বা পর্দা উঠিয়ে নেয়া হয়, অবশ্য তা আমরা প্রত্যক্ষ করতে পারতাম।


      الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَكُنْ وَاحِدًا لَكَانَ مُتَعَدِّدًا، وَلَوْ كَانَ مُتَعَدِّدًا لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ تَعَالٰى: قُلْ هُوَاللهُ اَحَدٌ وَقَالَ تَعَالٰى: لَوْ كَانَ فِيْهِمَا اٰلِهَةٌ اِلَّا اللهَ لَفَسَدَتَا .


مَا هِىَ الْقُدْرَةُ ؟

اَلْقُدْرَةُ هِىَ صِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى اَىْ ثَابِتَةٌ لِذَاتِه تَعَالٰى يَتَأَتَّـى بِهَا اِيْجَادُ كُلِّ مُمْكِنٍ وَاِعْدَامُهُ عَلٰى وَفْقِ الْاِرَادَةِ، لَوْ كُشِفَ عَنَّا الْحِجَابُ لَـرَأَيْنَاهَا .


مَا الدَّلِيْلُ عَلٰـى الْقُـدْرَةِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذَالِكَ وَجُوْدُ هٰذِه الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالْقُدْرَةِ لَكَانَ مُتَّصِفًا 


❏ আল্লাহ'র কুদরতের প্রমাণ কি❓

এ সৃষ্টি জগতের অস্তিত্বই হল আল্লাহ'র কুদরতের বা শক্তির অকাট্য প্রমাণ। কেননা তিনি কুদরতের গুণে গুণান্বিত না হলে অবশ্যই অক্ষম হবেন। আর তিনি অক্ষম হলে এ বিশাল পৃথিবীর কিছুই অস্তিত্বে আসত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন-নিশ্চয় আল্লাহ তাআলা যাবতীয় বিষয়ের ওপর সর্বময় ক্ষমতাবান।

➥আল-কুরআন, সূরা বাক্বারা, আয়াত: ২০



❏ আল্লাহর ইরাদা বলতে কি বুঝ❓

আল্লাহ্ তাআলার ইরাদা বা ইচ্ছা শক্তি নিজ সত্তা সংশিষ্ট একটি স্থায়ী গুণ বা বিশেষণ। যার মাধ্যমে বৈধ সম্ভাব্য কিছু কিছু বিষয়কে নির্দিষ্ট করেন। আমাদের থেকে যদি চোখের আবরণ উঠিয়ে নেয়া হয়, অবশ্যই তা আমরা দেখতে পারতাম।


❏ ইরাদা বা আল্লাহ'র ইচ্ছাশক্তির প্রমাণ কি❓

এর দলীল সৃষ্টি জগতের অস্তিত্ব। কেননা তিনি ইচ্ছার বিশেষণে বিশেষিত না হলে, অবশ্যই অনিচ্ছার বিশেষণে বিশেষিত হতেন।



    بِالْعِجْزِ، وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالْعِجْزِ لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ تَعَالٰى: اِنَّ اللهَ عَلٰى كُلِّ شَيْئٍ قَدِيْرٌ.

مَاهِىَ الْاِرَادَةُ ؟

اَلْاِرَادَةُ هِىَ صِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى اَىْ ثَابِتَةٌ لِذَاتِه تَعَالٰى يُخَصِّصُ اللهُ بِهَا الْمُمْكِنَ بِبَعْضٍ مَايَجُوْزُ عَلَيْهِ، لَوْ كُشِفَ عَنًّا الْحِجَابُ لَرَأَيْنَاهَا .

مَا الدَّلِيْلُ عَلٰـى الْاِرَادَةِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِه الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالْاِرَادَةِ لَكَانَ مُتَّصَفًا بِالْكَرَاهَةِ .

وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالْكَرَاهَةِ لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ اللهُ تَعَالٰى:


যদি অনিচ্ছার বিশেষণে বিশেষিত হতেন, তাহলে এ সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই অস্তিত্বে আসত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন,যখন তিনি কোন কিছু করতে ইচ্ছে পোষণ করেন, তখন সেটার উদ্দেশ্যে বলেন,হয়ে যাও, তখন তা হয়ে যায়।

➥আল-কুরআন, সূরা ইয়াসিন, আয়াত: ৮২


❏ ইলম বা আল্লাহ'র জ্ঞান বলতে কি বুঝ❓

ইলম বা জ্ঞান আল্লাহ্ তাআলার সত্তা সংশিষ্ট একটি স্থায়ী বিশেষণ। ইহার দ্বারা সূক্ষ্ম-গোপন প্রত্যেকটি বস্তুকে সংক্ষিপ্তাকারে ও বিস্তারিতরূপে জানা যায়। যদি আমাদের থেকে চোখের আবরণ উঠিয়ে নেয়া হলে অবশ্যই তা আমরা প্রত্যক্ষ করতে সক্ষম হতাম।


❏ ইলম বা আল্লাহ'র জ্ঞানের প্রমাণ কি❓

আল্লাহ্ তাআলার স্থায়ী জ্ঞানের দলীল বিদ্যমান এ সৃষ্টি জগতের অস্তিত্ব। কেননা তিনি স্থায়ী জ্ঞানে বিশেষিত না হলে অজ্ঞ হতেন, অথবা এর সমপর্যায়ের কিছু। যদি তিনি অজ্ঞ অথবা এর সমপর্যায়ের কিছু হতেন, এমতাবস্থায় এ সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই অস্তিত্ব লাভ করত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন,নিশ্চয়ই আল্লাহ্ তাআলার জ্ঞান সবকিছুকে পরিবেষ্টন করে রেখেছে। 

➥আল-কুরআন, সূরা তালাক্ব, আয়াত: ১২



 اِنَّمَا اَمْرُهُ اِذَا اَرَادَ شَيئًا اَنْ يُّقُوْلَ لَهُ كُنْ فَيَكُوْنُ . 

مَاهُوَ الْعِلْمُ ؟

اَلْعِلْمُ هُوَ صِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى اَىْ ثَابِتَةٌ لِذَاتِه تَعَالٰى يُعْلَمُ بِهَا الْاَشْيَاءُ اِجْمَالًا وَتَفْصِيْلًا مِنْ غَيْرِ سَبَقٍ خَفِـىٍّ لَوْ كُشِفَ عَنَّا الْحِجَابُ لَرَأَيْنَاهَا .


مَا الدَّلِيْلُ عَلٰـى الْعِلْمِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْ لَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالْعِلْمِ لَكَانَ مُتَّصِفًا بِالْجِهْلِ وَمَا فِىْ مَعْنَاهُ وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالْجَهْلِ وَمَا فِىْ معْنَاهُ لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ اللهُ تَعَالٰى: وَاِنَّ اللهَ قَدْ اَحَاطَ بِكُلِّ شَيْئٍ عِلْمًا .


❏ হায়াত বা আল্লাহ্ চিরঞ্জীব বলতে কি বুঝ❓

হায়াত বা চিরঞ্জীব আল্লাহ্ তাআলার সত্তা সংশিষ্ট একটি স্থায়ী বিশেষণ। ইহা জ্ঞান, ইচ্ছা ও অন্যান্য প্রত্যেক পরিপূর্ণ গুণাবলীকে আবশ্যক ও বেষ্টন করে নেয়। আমাদের দৃষ্টির আবরণসমূহ উন্মোচিত করা হলে, আমরা অবশ্যই তা দেখতে সক্ষম হব।


❏ হায়াত বা আল্লাহ্ চিরঞ্জীব হওয়ার প্রমাণ কি❓

হায়াত বা আল্লাহ্ চিরঞ্জীব হওয়ার দলীল বিদ্যমান সমস্ত সৃষ্টি জগতের অস্তিত্ব। কেননা তিনি চিরঞ্জীবের গুণে গুণান্বিত না হলে অবশ্যই নশ্বর হতেন। আর নশ্বর হলে এ সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই সৃষ্টি হত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন-তিনিই চিরঞ্জীব, তিনি ব্যতীত অন্য কোন মাবুদ নেই।➥আল-কুরআন, সূরা মু’মিন, আয়াত: ৬৫



 مَاهِـىَ الْـحَـيَاةُ ؟

اَلْحَيَاةُ هِىَ صِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى اَىْ ثَابِتَةٌ لِذَاتِه تُوْجِبُ لَهُ الْاِتِّصَافَ بِالْعِلْمِ وَالْاِرَادَةِ وَغَيْرِهِمَا مِنْ كُلِّ كَمَالٍ، وَلَوْ كُشِفَ عَنَّا الْحِجَابُ لَرَأَيْنَاهَا.


مَا الدَّلِيْلُ عَلَى الْـحَيَاةِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْ لَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالْحَيَاةِ لَكَانَ مُتَّصِفًا بِالْمَوْتِ وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالْمَوْتِ لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ اللهُ تَعَالٰى: هُوَالْحَىُّ لَا اِلٰهَ اِلَّاهُوَ .

مَاهُـوَ السَّـمْـعُ ؟

اَلسَّمْعُ هُوَ صِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى اَىْ ثَابِتَةٌ لِذَاتِه تَعَالٰى يُسْمَعُ بِه


❏ আল্লাহ'র শ্রবণশক্তি বলতে কি বুঝ❓

শ্রবণশক্তি আল্লাহ্ তাআলার সত্তার সাথে সংশিষ্ট বিদ্যমান একটি স্থায়ী গুণ। প্রত্যেক অস্তিত্বকে কর্ণদ্বয় ও  কর্ণ কুহুর বিহীন (ইহা দ্বারা) শ্রবণ করেন। আমাদের থেকে চোখের আবরণ দূর করা হলে অবশ্যই আমরা ইহা প্রত্যক্ষ করতাম।


❏ আল্লাহ্ শ্রবণশক্তি সম্পন্ন হওয়ার প্রমাণ কি❓

এ সৃষ্টিকুলের অস্তিত্ব বিদ্যমানই এর প্রমাণ। কেননা তিনি শ্রবণশক্তির গুণে গুণান্বিত না হলে অবশ্যই বধির হতেন। বধির হলে এ সৃষ্টি জগতের কোন কিছুই অস্তিত্ব লাভ করত না। আল্লাহ তাআলা বলেন,নিশ্চয় আল্লাহ্ তাআলা ঐ মহিলার উক্তি শ্রবণ করেছেন, যে তার স্বামীর ব্যাপারে আপনার সাথে বাদানুবাদ করেছে।

➥আল-কুরআন, সূরা মুজা’দালাহ,আয়াত: ১


❏ আল্লাহ'র দৃষ্টিশক্তি বলতে কি বুঝ❓

দৃষ্টিশক্তি আল্লাহ্ তাআলার সত্তা সংশিষ্ট বিদ্যমান একটি স্থায়ী গুণ। যদ্বারা চক্ষু ও চক্ষু পুতলিবিহীন প্রত্যেক অস্তিত্ব প্রত্যক্ষ করেন। আমাদের থেকে যদি চোখের আবরণ দূর করা হলে অবশ্যই আমরা তা দেখতে পাব।


 كُلُّ مَوْجُوْدٍ بِغَيْرِ اُذْنَيْنِ وَصِمَاخٍ لَوْ كُشِفَ عَنَّا الْحِجَابُ لَرَأَيْنَاهَا .


مَا الدَّلِيْلُ عَلَى السَّمْـعِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالسَّمْعِ لَكَانَ مُتَّصِفًا بِالصَّمَمِ، وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالصَّمَمِ لَمْ يُوْجَدْ شَيْئً مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ تَعَالٰى: قَدْ سَمِعَ اللهُ قَوْلَ الَّتِىْ تُجَادِلُكَ فِىْ زَوْجِهَا .


مَاهُوَ الْـبَصْرُ؟

اَلْبَصْرُ هُوَصِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِـمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى يُبْصَرُ بِه كُلُّ مَوْجُوْدٍ بِغَيْرِ عَيْنَيْنِ وَحَدَقَةٍ، لَوْ كُشِفَ عَنَّا الْحِجَابُ لَـرَأَيْنَاهَا .


مَا الدَّلِيْلُ عَلَـى الْبَصْرِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وَجُوْدُ هٰذِهِ


❏ আল্লাহ্ দৃষ্টিশক্তি সম্পন্ন হওয়ার প্রমাণ কি❓

আল্লাহর দৃষ্টিশক্তির দলীল এ সৃষ্টি জগতের অস্তিত্ব। কেননা তিনি দ্রষ্টা না হলে অবশ্যই অন্ধ হতেন। অন্ধ হলে সৃষ্টি জগত অস্তিত্বহীন হয়ে পড়ত। আল্লাহ্ তাআলা বলেন,তিনি সর্বশ্রোতা, সর্বদ্রষ্টা।

➥আল-কুরআন, সূরা মু’মিন, আয়াত: ২০


❏ আল্লাহ'র কালাম বা বাণী বলতে কি বুঝ❓

কালাম বা বাণী আল্লাহ্ তাআলার সত্তা সংশিষ্ট বিদ্যমান একটি স্থায়ী গুণ। যা সমস্ত জ্ঞাত বিষয়কে বর্ণ ও আওয়াজ ব্যতীত প্রকাশ করে এবং পূর্বাপর ও অন্যান্য ধ্বংসশীল গুণাবলী থেকে পূতঃপবিত্র। আমাদের থেকে চোখের আবরণ উঠিয়ে নেয়া হলে অবশ্যই আমরা তা প্রত্যক্ষ করতে পারব।


  الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالْبَصْرِ لَكَانَ مُتَّصِفًا بِالْعَمٰى، وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالْعَمٰى لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ، وَقَالَ اللهُ تَعَالٰى: وَهُوَ السَّمِيْعُ الْبَصِيْرُ.

مَاهُوَ الْكَـلَامُ ؟

اَلْكَلَامُ هُوَ صِفَةٌ قَدِيْمَةٌ قَائِمَةٌ بِذَاتِه تَعَالٰى اَىْ ثَابِتَةٌ لِذَاتِه تَعَالٰى تَدُلُّ عَلٰى مَعْلُوْمٍ لَيْسَتْ بِحَرْفٍ وَلَا صَوْتٍ مُنَـزِّهَةٌ عَنِ التَّقَدُّمِ وَالتَّأَخُّرِ وَغِيْرِهِمَا مِنْ صِفَاتِ الْحَوَادِثِ لَوْكُشِفَ عَنَّا الْحِجَابُ لَرَأَيْنَاهَا .


مَاالدَّلِيْلُ عَلٰى الْكَلَامِ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ وُجُوْدُ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ لِاَنَّهُ لَوْلَمْ يَكُنْ مُتَّصِفًا بِالْكَلَامِ لَكَانَ مُتَّصِفًا


❏ আল্লাহ'র কালাম বা বাণী, এর দলীল কি❓

এ সৃষ্টি জগতের অস্তিত্ব বিদ্যমানই এর প্রমাণ। কেননা তিনি বক্তার গুণে গুণান্বিত না হলে অবশ্যই বোবা বা এর সমপর্যায়ের কিছু হতেন। যদি তিনি বোবা বা এর সমপর্যায়ের কিছু হতেন, এমতাবস্থায় এ বিশ্বজগতের কোন কিছুই অস্তিত্ব লাভে সক্ষম হত না। আল্লাহ্ তাআলা বলেন-আল্লাহ তাআলা হযরত মুসা (عليه السلام) এর সাথে সরাসরি কথোপকথন করেছেন।

➥আল-কুরআন, সূরা নিসা, আয়াত:১৬৪


❏ আল্লাহ্ তাআলা সর্বশক্তিমান অর্থ কি এবং এর প্রমাণ কি❓

এর ভাবার্থ হচ্ছে, আল্লাহ্ তাআলা সকল সম্ভাব্য বস্তুর ওপর সর্বশক্তিমান। সর্বশক্তিমানই এর দলীল।


❏ আল্লাহ্ তাআলা সংকল্পকারী এর অর্থ ও প্রমাণ কি❓

এর ভাবার্থ হচ্ছে, আল্লাহ্ তাআলা সকল সম্ভাব্য বিষয়াদির ইচ্ছা পোষণকারী। ইচ্ছা শক্তিই হচ্ছে, এর দলীল।


❏ আল্লাহ্ তাআলা মহাজ্ঞানী এর অর্থ ও দলীল কি❓

এর ভাবার্থ হলো, আল্লাহ্ তাআলা প্রত্যেক বস্তু সম্যকরূপে পরিজ্ঞাত। মহাজ্ঞানী হওয়াই এর দলীল।



 بِالْبُكْمِ وَمَافِى مَعْنَاهُ، وَلَوْ كَانَ مُتَّصِفًا بِالْبُكْمِ وَمَا فِىْ مَعْنَاهُ، لَمْ يُوْجَدْ شَيْئٌ مِنْ هٰذِهِ الْمَخْلُوْقَاتِ وَقَالَ اللهُ تَعَالٰى: وَكَلَّمَ اللهُ مُوْسٰى تَكْلِيْمًا .

مَا مَعْنٰى كَوْنِه تَعَالٰى قَادِرًا وَمَا دَلِيْلُهُ؟

مَعْنَاهُ اَنَّ اللهَ تَعَالٰى قَادِرٌ عَلٰى كُلِّ شَيْئٌ مُمْكِنٍ، وَدَلِيْلُهُ دَلِيْلُ الْقُدْرَةِ.


وَمَا مَعْنٰى كَوْنِه تَعَالٰى مُرِيْدًا وَمَا دَلِيْلُهُ؟

مَعْنَاهُ اَنَّ اللهَ تَعَالٰى مُرِيْدٌ لِكُلِّ شَيْئٍ مُمْكِنٍ، وَدَلِيْلُهُ دَلِيْلُ الْاِرَادَةِ.

مَا مَعْنٰى كَوْنِه تَعَالٰى عَالِمًا وَمَا دَلِيْلُهُ؟

مَعْنَاهُ اَنَّ اللهَ عَالِمٌ بِكُلِّ شَيْئٍ، وَدَلِيْلُهُ دَلِيْلُ الْعِلْمِ.

مَا مَعْنٰى كَوْنِهِ تَعَالٰى حَيًّا وَمَا دَلِيْلُهُ؟


❏ আল্লাহ্ তাআলা চিরঞ্জীব-এর অর্থ ও দলীল কি❓

এর অর্থ আল্লাহ তাআলা চিরঞ্জীব তিনি কখনো মৃত্যুবরণ করবেন না। চিরঞ্জীব হওয়াই এর দলীল।


❏ আল্লাহ তাআলা সর্বশ্রোতা এর অর্থ ও দলীল কি❓

এর ভাবার্থ, আল্লাহ তাআলা প্রত্যেক বিষয়ের শ্রবণকারী। বর্ণিত শ্রবণের দলীল। তিনি শ্রবণকারী হওয়াই এর দলীল।


❏ আল্লাহ তাআলা সর্বদ্রষ্টা এর অর্থ ও দলীল কি❓

এর ভাবার্থ, আল্লাহ তাআলা প্রত্যেক কিছুই প্রত্যক্ষকারী। সর্বদ্রষ্টা হওয়াই এর দলীল।


❏ আল্লাহ তাআলা বক্তা এর অর্থ ও দলীল কি❓

এর ভাবার্থ,আল্লাহ তাআলা বর্ণ ও ধ্বনি বিহীন কথক বা বক্তা। তাঁর গুণ সম্বলিত কালামই-এর দলীল।


❏ আল্লাহ তাআলার জন্যে অসম্ভব বিষয়গুলো কি❓ সংক্ষিপ্তাকারে বর্ণনা কর।

আল্লাহ তা‘আলার জন্যে সংক্ষিপ্তাকারে অসম্ভব হল- তিনি প্রত্যেক অসম্পূর্ণতা থেকে পূত-পবিত্র।