নবী-রাসূল সম্পর্কিত আকিদা-২ | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

নবী-রাসূল সম্পর্কিত আকিদা-২


❏ রাসুলগণের (عليه السلام) ক্ষেত্রে কি কি বিষয় অসম্ভব❓

রাসুলগণের (আঃ) জন্য চারটি বিষয় অসম্ভব। মিথ্যাচার, বিশ্বাসঘাতকতা, সত্য গোপন ও নিবুর্দ্ধিতা। 


 مَا الدَّلِيْلُ عَلٰى تَبْلِيْغِهِمْ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ : اُمِرْنَا بِاِتِّبَاعِهِمْ لِاَنَّهُمْ لَوْلَمْ يَكُوْنُوْا مُبَلِّغِيْنَ لَكَانُوْا كَاتِمِيْنَ وَلَوْ كَانُوْا كَاتِمِيْنَ لَمَا اَمَرَنَا اللهُ تَعَالٰى بِاِتِّبَاعِهِمْ .


مَا مَعْنٰى الْفَطَانَـةِ ؟

مَعْنَاهَا اَنَّهُ يُمَكِنُّهُمْ اِقَامَةُ الْحُجَجِ الظَّاهِرَةِ عَلٰى خَصَمِهِمْ وَالتَّعْبِيْرُ عَمَّا فِىْ ضَمَائِرِهِمْ بِاَوْضَحِ عِبَارَةٍ. 


مَا الدَّلِيْلُ عَلٰى فَطَانَتِهِمْ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ اَنَّ اللهَ سُبْحَانَهُ وَتَعَالٰى قَدْ اِخْتَارَهُمْ لِهٰذَا الْمَنْصَبِ الشَّرِيْفِ وَلَا يَخْتَارُ اللهُ تَعَالٰى اِلَّا مَنْ كَانَ فَطَنًا نَبِيْهًا .

مَاهُوَ الْمُسْتَحِيْلُ فِىْ حَقِّ الرُّسُلِ عَلَيْهِمُ الصَّلوٰةُ وَالسَّلَامُ؟

اَلْمُسْتَحِيْلُ فِىْ حَقِّهِمْ اَرْبَعَةُ: اَلْكِذْبُ، وَالْخِيَانَةُ، وَالْكِتْمَانُ، وَالْبَلَادَةٌ.


রাসুলগণের ক্ষেত্রে উপযুক্ত গুণাবলী এবং বৈপরীত্য গুণাবলী বর্ণনা কর।

সততার বিপরীতে মিথ্যাচার, বিশ্বস্ততার বিপরীতে বিশ্বাসঘাতকতা, তাবলীগের বিপরীতে গোপন করণ এবং বুদ্ধিমত্তার বিপরীতে নিবুর্দ্ধিতা।


❏ রাসুলগণের (عليه السلام) জন্য কি কি বৈধ❓

রাসুলগণের (عليه السلام) জন্য বৈধ প্রত্যেক মানবীয় গুণাবলী যা তাঁদের উচ্চ মর্যাদাকে ক্ষুন্ন করে না। যেমন- খাবার গ্রহণ করা, পান করা, ভ্রমণ করা, স্বাভাবিকভাবে অসুস্থ হওয়া, বিবাহ করা ও ক্রয়-বিক্রয় করা।


❏ এর দলীল কি❓

এর দলীল- মোশাহাদা অর্থাৎ চাক্ষুস প্রত্যক্ষ করা কেননা যারা তাদের নিকট উপস্থিত ছিলেন তারা সচক্ষে উহার প্রমাণ দেখেছেন। বস্তুত: যারা ছিলেন না তাদের নিকট বিশ্বস্ত ও নির্ভরযোগ্য খবর পেঁঁৗছেছে।


  اُذْكُرْ كُلَّ صِفَةٍ مِنْ صِفَاتِ الرُّسُلِ عَلَيْهِمُ الصَّلَاةُ وَالسَّلَامُ وَبِجَانِبِهَا ضِدَّهَا ؟

اَلصِّدْقُ ضِدُّهُ اَلْكِذْبُ، وَالْاَمَانَةُ ضِدُّهَا الْخِيَانَةُ وَالتَّبْلِيْغُ ضِدُّهُ الْكِتْمَانُ، وَالْفَطَانَةُ ضِدُّهَا اَلْبَلَادَةُ .


مَاهُوَ الْجَائِزُ فِىْ حَقِّ الرُّسُلِ عَلَيْهِمُ الصَّلَاةُ وَالسَّلَامُ؟ 

اَلْجَائِزُ فِىْ حَقِّ الرُّسُلِ عَلَيْهِمُ الصَّلَاةُ وَالسَّلَامُ كُلُّ وَصْفٍ بَشَرِىٍّ لَايُؤَدِّىْ اِلٰى نُقْصِ فِىْ مَرَاتِبِهِمْ الْعُلِيَّةِ مِثْلُ الْاَكْلِ وَالشُّرْبِ وَالسَّفْرِ وَالْمَرْضِ الْخَفِيْفِ وَالتَّزَوُّجِ وَالْبَيْعِ وَالشِّرَاءِ .


مَا الدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ ؟

اَلدَّلِيْلُ عَلٰى ذٰلِكَ الْمُشَاهَدَةُ لِاَنَّ مَنْ حَضَرَهُمْ شَاهَدَ ذٰلِكَ وَمَنْ لَمْ يَحْضُرْهُمْ بَلَغَهُ الْخَبْرُ الْمُتَوَاتِرُ.


❏ ‘আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নেইএর অর্থ কি❓

লাইলাহা ইল্লাল্লাহ-এর অর্থ বস্তুত: আল্লাহ ব্যতীত অন্য কোন উপাস্য নেই। তিনি সকল বস্তুর সৃষ্টিকর্তা। তিনি কারো মুখাপেক্ষী নন বরং সব কিছু তাঁরই মুখাপেক্ষী।


❏ ‘মুহাম্মদুর রাসূলুল্লাহ-এর অর্থ কি❓

মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ-এর অর্থ নিশ্চয় তিনি সৃষ্টিতে ও শিষ্টাচারে পরিপূর্ণ মানব। যাঁকে পূর্ববর্তী সকল শরিয়তের রহিতকারী হিসেবে এবং নতুন শরিয়ত সহকারে সৃষ্টিকুলের প্রতি প্রেরণ করা হয়েছে। যাঁর পরে কখনো আর কোন নবীর আগমন হবে না।