অন্যান্য নির্ভর‍যোগ্য হাদিস ও ঘটনা থেকে হায়াতুন্নবী (আ) এর প্রমান :- | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস


★★★ রাসুলুল্লাহ (সা) নিজে হযরত ইসা (আ) এর সম্বোধনের জবাব দিবেন :-

وعن أبي هريرة قال: سمعت رسول الله صلى الله عليه وسلّم يقول: والّذي نَفْسُ أَبي القاسِمِ بِيَدِهِ لَيَنْزِلَنَّ عيسى ابنُ مَريمَ إمَاماً مُقْسِطاً، وَحَكَماً عَدْلاً، فَلَيَكْسِرَنَّالصَّلِيْبَ، وَيَقْتُلَنَّ الخِنْزِيرَ، وَلَيُصْلِحَنَّذَاتَ البَيْنِ، وَلَيُذْهِبَنَّالشَّحْنَاءَ، وَلَيَعْرُضَنَّالمَالَ فَلا يَقْبَلهُ أَحَدٌ، ثُمَّ لَئِنْ قَامَ على قَبْرِي فَقَالَ: يَا مُحَمَّدُ لأجِيْبَنَّهُ . قلت: هو في الصحيح باختصار. رواه أبو يعلى ورجاله رجال الصحيح

আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত যে , আমি রাসুলুল্লাহ (صلى الله عليه و آله وسلم) কে বলতে শুনেছি : ঐ এক আল্লাহর শপথ যার হাতে আবুল কাসেম এর আত্তা ", ঈসা ইবনে মরিয়ম (অবশ্যই) ন্যায় ও জ্ঞানী শাসনকর্তা হিসেবে অবতরন করবেন`। তিনি ত্রুশ কে ধ্বংস করবেন, শুকর হত্যা করবেন. মতভেদ, বিবাদ, ঈর্ষা দূর করবেন এবং তাঁকে টাকা প্রস্তাব করা হবে কিন্তু তিনি তা ফিরিয়ে দিবেন অতঃপর তিনি আমার রৌজার পাশে দাঁড়াবেন এবং বলবেন ইয়া মুহাম্মদ (صلى الله عليه و آله وسلم) ! এবং আমি তার উত্তর দিব ।

হাদিসটির মান :

এ হাদিসকে ইমাম হাকেম, ইবনে আসাকির এবং মুত্তাকী হিন্দী বর্ণনা করেছেন। ইমাম হাকেম বলেন, ইহা সহীহ সনদ বিশিষ্ট হাদিস।

Reference :

★ ইবনে আসাকিরঃ তারিখে মদীনা-এ দামেস্ক, ৪৭/৪৯৩; বৈরুত, লেবানন, দারুল ফিকর;

★ হিন্দীঃ কানযুল উম্মাল, ১৪/১৪৬, হাদিস: ৩৮৮৫১, বৈরুত, লেবানন, মুয়াস্সাতুর রিসালাহ]

★ Musnade Abu Ya`la [with a sound chain]
Publication : (Dar al-Ma'mun ed. 1407/1987)
Page : 11
Hadith : 462

★ Ibn Hajar Asqalani cites it in al-matalib al-`aliya (Kuwait, 1393/1973) 4:23, chapter entitled: "The Prophet's life in his grave" and #4574;

★ Imam Hakim : al-Mustadrak Ala as-Saheehayn:
Volume : 2
page : 651
Hadith : 4162

★ Haythami says in Majma` al-zawa'id (8:5), chapter entitled: "`Isa ibn Maryam's Descent": "Its sub-narrators are the men of sound (sahih) hadith."

★ Ibn Hajar al-Haytami : Fatawa al-Hadithiyya (1/129) without weakening it.

★ Imam al-Suyuti, in his al-Hawi lil-Fatawi (2/140)

★ Imam suyuti Khasais al-Kubra (2/490) without any form of weakening.

★ Imam Ali ibn Burhanud-Din al-Halabi also mentioned it in his al-Siratul Halabiyya (2/432) without weakening it.

★ Shaykh Muhammad Anwar Shah al-Kashmiri : al-Tasrih bima Tawatur fi Nuzul al-Masih (p. 244)

★ al-Alusi (of Baghdad) in his Ruh al-Maani (7: 60).

★ Shaykh Abdullah al-Ghumari in his Iqamatul Burhan (p. 34)

★ Ohabi Shaykh Abdal Fattah Abu Ghudda, mentioned in the editing of the Tasrih (p. 245) (Ghumari's student)

★ Salafi known as Abu Muhammad al-Maqdisi : al-Tuhfatul Maqdisiyya (p. 52) : he declared the sanad to be Jayyid (good)




قول الألباني في حديث ضمه إلى سلسلة الأحاديث الصحيحة : إسناده جيد هل هو تصحيح له ؟

مثال ذلك : " والذي نفس أبي القاسم بيده لينزلن عيسى ابن مريم إماما مقسطا و حكما عدلا ،
فليكسرن الصليب و ليقتلن الخنزير و ليصلحن ذات البين و ليذهبن الشحناء و ليعرضن
عليه المال فلا يقبله ، ثم لئن قام على قبري فقال : يا محمد لأجبته " .

قال الألباني في " السلسلة الصحيحة " 6 / 524 :

أخرجه أبو يعلى في " مسنده " ( 4 / 1552 ) : حدثنا أحمد بن عيسى أخبرنا ابن وهب
عن أبي صخر أن سعيد المقبري أخبره أنه سمع أبا هريرة يقول : سمعت رسول الله
صلى الله عليه وسلم : فذكره .

قلت(الألباني) : و هذا إسناد جيد رجاله كلهم ثقات رجال
الشيخين غير أبي صخر - و هو حميد ابن زياد الخراط - فمن رجال مسلم وحده ، و قد
تكلم فيه بعضهم ، و صحح له ابن حبان و الحاكم و البوصيري ، و مشاه المنذري ،انتهى .

قلتُ (أنا )
و هذا ليس مثالا مطابقا للسؤال لأنه لم يقل إسناده جيد فقط بل استدرك وجود راو متكلم فيه وقع في السند و هو الخراط حميد



★ সালাফীদের ইমাম আলবানী তার সিল-সিলাতুল আহাদিসিস সহীহা; ৬/৫২৪।




★★★ রওজা মোবারক থেকে আজান শোনা যেত :-

ইমাম দারিমি (রহ) লিখেন,

"যখন ইয়াজিদ বিন মুয়াবিয়া (লানতুল্লাহ) মাদিনায় আক্রমন করেছিল,
মাসজিদ -এ-নববীতে ৩ দিনের জন্য কোনো আযান ও জামাত ছিল না।

সা’ঈদ ইবনে মুসায়াব বলেন,'‘আমি মাসজিদ এ-নববী صلى الله عليه و آله وسلم তে ৩ দিন ছিলাম এবং (চিন্তায়) মজনুন(পাগল) হয়ে গিয়েছিলাম এবং প্রত্যেক সালাতের জন্য রাসুলুল্লাহ صلى الله عليه و آله وسلم এর পবিত্র রৌজা মুবারক থেকে আযান শোনতে পেতাম।"

Reference :

★ Sunnan al Darimi,
Volume No.1,
Page No. 44,
Hadith # 94,
chapter: Fada’il-e-Nabi (صلى الله عليه و آله وسلم)
Published by Dar ul Kutb al-iLmiyyah, Beirut, Lebanon]




★★★ রওজা মোবারক জিয়ারত স্বয়ং রাসুলুল্লাহ (সা)
এর জীবদ্দশায় সাক্ষাত এর মত :-

($) Hadith () :- অপর হাদিসে আছে :

عَنِ ابْنِ عُمَرَ رضي اﷲ عنهما قَالَ : قَالَ رَسُوْلُ اﷲِ صلي الله عليه وآله وسلم : مَنْ زَارَ قَبْرِي بَعْدً مَوْتِي کَانَ کَمَنْ زَارَنِي فِي حَيَاتِي

আব্দুল্লাহ ইবনে উমর (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (صلى الله عليه و آله وسلم) বলেন : যে কেউ আমার ওফাতের পর আমার কবরে (রৌজায়) সাক্ষাত (জিয়ারত) করতে আসল এটা এ রকম যেন সে আমার জিবদ্দশায় (আমার সাথে) সাক্ষাত করিয়াছে ।

Reference: -

1) Tibrani Volume 012: Hadith Number 406,

2) Bayhaqi Shab ul Iman Volume 003: Hadith Number 489

3) al-Tabarani, al-Mu‘jam al-Awsat, 1/95 (#287)

4) al-Daraqutni, Sunan, 2/278 (#192)

5) Al Muttaqi Al Hindi : Kanz al-‘Ummal : Hadith 2196

6) Kanz al-‘Ummal : Hadith 12368,

7) Kanz al-‘Ummal : Hadith 12371,

8) Kanz al-‘Ummal : Hadith 12398

9) Kanz al-‘Ummal : Hadith 16413




★★★  হযরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন,আমি নবী পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সাথে কা'বা শরীফ তাওয়াফ করছিলাম। আমি দেখলাম, আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কারো সাথে মুসাফাহা করলেন, অথচ আমি কাউকে দেখলামনা। আমরা বললাম, হে আল্লাহর রাসুল, আপনি কারো সাথে মুসাফাহা করলেন, অথচ আমরা তাঁকে দেখলামনা। হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন,"উনি হচ্ছেন আমার ভাই ঈসা ইবনু মারইয়াম। আমি তাঁর তাওয়াফ শেষ হওয়ার অপেক্ষা করছিলাম, অতঃপর (তাওয়াফ শেষ হলে) আমি তাঁকে সালাম দিলাম।

Reference :

★ তাফসীরে রুহুল মা'আনী-১১/২১৮ * সুবহানাল্লাহ*




★★★ Proof ($):::--


আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস(রাঃ) থেকে বর্ণিত যে রাসূলুল্লাহ صلى الله عليه و آله وسلم বলেন,

" অতঃপর যখন তারা (শহীদগন) খাবার ,পানীয় এবং বিশ্রামের স্বাদ অনুভব (ভোগ) করবে ,তারা জিজ্ঞেস করবে : কে আমাদের (সঙ্গী)ভাতৃগণদের আমাদের সম্বন্ধে বলবে যে আমরা জান্নাতে জিবীত আছি এবং আমাদেরকে রিজিক দেয়া হয় ।
এজন্য যে তারা যেন জিহাদকে অপছন্দ না করে এবং (দ্বীনের জন্য) যুদ্ধক্ষেত্র থেকে যেন তারা ভয়ে পালিয়ে না যায় ।

Reference :

★ ABU DAWOOD (Book #14, Hadith #2514)

★ MISHKAT (HADITH 3853)

★ IBN KHATEER UNDER THE COMMENTARY OF SURAH IMRAN 3 VERSE 169)