আলা হযরত এর ইশকে ভরপুর কাব্য! | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

প্রায় সকল শায়ের এরই চিন্তা এমন থাকে, সে তার মাহবুব এর জুলফ'কে রাত এর সাথে তুলনা দিবে। হাফিয সিরাজি বলেন— আমার প্রিয়কে তো দেখো; কিভাবে জুলফের অন্ধকারে নিজ চেহারার চেরাগ জ্বালিয়ে মানুষের হৃদয় লুটে নিচ্ছে! 

আমার আলা হযরতেরও মন চাইলো আপন মাহবুব এর কুন্ডল-কুন্ডল জুলফ'কে রাত বলি। কিন্তু আবার অন্তরও সায় দিচ্ছিল না। কেন রাত বলব? রাত তো অন্ধকার হয়। আলো জ্বালায় তো দিন। কিন্তু ইশক যখন কলম ধরল, তো আলা হযরত তাক লাগিয়ে দিলেন। ভাবলেন চলো রাত বলব না, 'লাইলাতুল ক্বদরই' বলে দেই। 

বললেন—
'Lailatul Qadr Me Matlail Fajre Haq
Maang Ki Istiqamat Pe Laakho Salaam'

'আপনার জুলফের কেন্দ্রস্থল “কদরের রাতে” ফজরের উত্থান হিসাবে প্রদর্শিত হয়। কেন্দ্র-পথের সরলতার উপর লাখো সালাম।'

The center-path of your hair appears as “the rise of Fajr” in “the night of Qadr. Millions of peace be upon the straightness of the center-path.

আল্লাহ আকবার। এই এক একটা শব্দের পিছনে কি পরিমাণ ইশক রয়েছে তার পরিমাপক আমার কাছে নেই। আমার আলা হযরত এর আজমতের ওপর লাখো সালাম।