ইলম ও আলিমের মর্যাদা | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস



ইলম ও আলিমের মর্যাদা

মূলঃ আল্লামা আমজাদ আলী আজমী (রহ.)


"ইলম ইবাদতের চেয়ে উত্তম"

(কানযুল উম্মালঃ ইমাম হিন্দি, ১০/৭৬)


★মূর্খ মুফতীঃ


❏ হযরত আবু হুরায়রা (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত, সরকারে আক্বদাস (ﷺ) ইরশাদ করেন- "যে ইলম ছাড়া ফতোয়া দিবে, তার গুনাহ ফতোয়া জিজ্ঞাসাকারীর উপর হবে।"

● আবু দাউদ,আস সুনান, ১০/৭১, হাদিস-৩১৭২

● মিশকাতুল মাসাবিহ, পৃ-৩৫


❏ হযরত আলী (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত, "যে ইলম ছাড়া ফতোয়া দিল, আসমান যমীনের ফেরেশতারা তাকে অভিশাপ দিল।"

● ইবনে আসাকির, তারিখে দিমশক, ৫২/২০

● কানযুল উম্মাল(হিন্দি), ১০/১১১, হাদিস-২৯০১৮


❏ হযরত আবু হুরায়রা (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত, "শেষ যামানায় কিছু লোক আত্মপ্রকাশ করবে, যারা নেতা ও মূর্খ হবে। তারা মানুষকে ফতোয়া দিবে। তারা নিজেরাও পথভ্রষ্ট এবং অন্যদেরকেও পথভ্রষ্ট করবে।

● কানযুল উম্মাল(হিন্দি), ১০/১৯, হাদিস-২৯০৯৬


❏ হযরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসঊদ (رضي الله عنه) বলেন, "হে লোক সকল! যে কোন কিছু জানে, সে যেন তা বর্ননা করে। আর যে জানে না সে যেন বলে, আল্লাহ তা'আলা অধিক জ্ঞানী; কেননা এটাও ইলমের এক  অংশ যে, তুমি অজ্ঞাত বিষয়ের ব্যাপারে বলবে, আল্লাহ তা'আলা বেশি জ্ঞাত।

●  সহীহ বুখারী, ১৫/৯, হাদিস-৪৪৩৫

●  সহীহ মুসলিম, ১৩/৩৯২, হাদিস-৫০০৭

●  মিশকাতুল মাসাবিহ, পৃ-৭


*যাকে ইলম ছাড়া ফতোয়া দেওয়া হলো, তার গুনাহ ঐ ব্যক্তির উপর, যে ফতোয়া প্রদান করেছে।


★ইলমের ফযীলতঃ


❏ হযরত ইবনে আব্বাস (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত,  তিনি বলেন, " রাতে কিছুক্ষণ সময় জ্ঞান চর্চা করা পূর্ণ রাত্রি জাগরনের চেয়ে উত্তম।"

●  মিশকাতুল মাসাবিহ, পৃ-৩৬

●  দারমীঃ আল-মুসনাদ, ১/২৯৭, হাদীস-২৭০


❏ হযরত আনাস (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত,  "ইলমের সাথে অল্প আমল উপকার এবং মূর্খতার সাথে অধিক আমল উপকারে আসেনা।"

●  কানযুল উম্মাল(হিন্দি), ১০/৮৮, হাদিস-২৮৮০০


★ইলম অন্বেষণ ও তার ফযীলত 


❏ হযরত আনাস (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত,  তাজদারে মদীনা, রাসূল (ﷺ) ইরশাদ করেন, 

"ইলম (ধর্মীয় জ্ঞান) অর্জন করা প্রত্যেক মুসলমান নর-নারীর উপর ফরজ।"

●  ইবনে মাজাহঃ আস সুনান, ১/২৬০, হাদিস-২২০

●  মিশকাতুল মাসাবিহ, পৃ-৩৬


❏ হযরত আনাস (رضي الله عنه) বলেন,  "ইলম হাসিল করা আল্লাহর কাছে প্রিয় নামাজের চেয়ে, রোজার চেয়ে, হজ্জ্বের চেয়ে এবং আল্লাহর রাস্তায় জিহাদের চেয়ে।"

●  কানযুল উম্মাল(হিন্দি), ১০/৭৫, হাদিস-২৮৬৫৫


❏ হযরত সানজারা আযদী (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত, রাসূল (ﷺ) বলেন, "যে ব্যক্তি ইলম হাসিল করলো, তার ইলম হাসিল করাটা অতীতের গুনাহসমূহের কাফফারা হয়ে গেল।

●  তিরমিযীঃ আস সুনান ৯/২৪৫, হাদিস-২৫৭২

●  দারমীঃ আস সুনান, ২/১১৭, হাদীস-৫৭২

●  মিশকাতুল মাসাবিহ, পৃ-৩৬


❏ হযরত সায়্যিদুনা আবু হুরায়রা (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিত, রাসূল (ﷺ) বলেন, "দুটি গুণ মুনাফিকের মধ্যে একত্রিত হতে পারেনা, উত্তম চরিত্র ও দ্বীনের জ্ঞান।"

●  তিরমিজি, আস সুনান, ৯/২৯৮, হাদিস-২৬০৮

●  মিশকাতুল মাসাবিহ, পৃ-৩৬


★উলামাদের ফযীলত


❏ আল্লাহ তা'আলা বলেন,

"হে ঈমানদারগন! তোমরা আল্লাহর আনুগত্য কর ও রাসূলের আনুগত্য কর এবং যারা তোমাদের মধ্যে উলুল আমর (ওলামা)। ●  সূরা নিসা, আয়াত- ৫৯


❏ মহান আল্লাহ তা'আলা আরো বলেন,

"যারা ইলমের অধিকারী এবং যারা ইমলের অধিকারী নয় উভয় কি সমান হবে।" ●  সুরা যুমার, আয়াত-৯


ইলমে দ্বীন অর্জনে মর্যাদা নিয়ে লিখতে থাকলে শেষ হবে না। তারপরও চেষ্টা করেছি হুবহু বই থেকে কিছু কথা তুলে ধরতে।