করোনার মহামারীতে একদল পাখির তাওয়াফ, মহান আল্লাহর শান, কাবা ও মুমিনের মর্যাদা

সৌদি সরকার করোনা ভাইরাসের ভয়ে কিছু সময় কা'বা শরীফে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের তাওয়াফ বন্ধ রাখলেও ঐ সময়ে পাখিরা তাওয়াফ করে বিশ্ববাসীকে দেখিয়ে দিয়েছে যে পবিত্র কা'বার সম্মান আসলে কত উঁচু! কত সুমহান! সুবহানাল্লাহ্! সুবহা'নাল্লাহি ওয়া বিহামদিহি সুবহা'নাল্লাহিল আজীম! 
ভিডিও লিংকঃ
পবিত্র কা'বার সুমহান সম্মান ও মর্যাদা স্বয়ং মহান আল্লাহই রক্ষা করেন। যা পবিত্র কুরআনের সূরা ফীলে বর্ণিত হস্তি বাহীনি ধ্বংসের ঘটনা আমাদের স্বরণ করিয়ে দেয়। মহান আল্লাহ এভাবে কিয়ামত পর্যন্ত পবিত্র কা'বার সুমহান সম্মান ও মর্যাদা রক্ষা করবেন। প্রিয় নবীজি (ﷺ) বলেন,
 يَغْزُو جَيْشٌ الْكَعْبَةَ فَإِذَا كَانُوا بِبَيْدَاءَ مِنَ الْأَرْضِ يُخْسَفُ بِأَوَّلِهِمْ وَاٰخِرِهِمْ.
"(শেষ জামানায়) কাবা ঘর ধ্বংস করার জন্য এক বিশাল বাহিনী রওয়ানা হবে। কিন্তু যখন তারা এক সমতল মাঠে এসে পৌঁছবে, তখন তাদের প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত সকলকেই মাটিতে ধসিয়ে দেয়া হবে।" (#তথ্য: সহীহ বুখারী, হাদীছ নং-২১১৮ এবং সহীহ মুসলিম, হাদীছ নং-২৮৮৪)

প্রিয় নবীজি (ﷺ) আরো বলেন,
لَا تَزَالُ هٰذِهِ الْأُمَّةُ بِخَيْرٍ مَا عَظَّمُوْا هٰذِهِ الْحُرْمَةَ حَقَّ تَعْظِيمِهَا فَإِذَا ضَيَّعُوْا ذٰلِكَ هَلَكُوْا.
"এ উম্মাত (মুসলিম সম্প্রদায়) ততোদিন পর্যন্ত কল্যাণের মধ্যেই থাকবে, যতদিন তারা এ কা'বাকে পরিপূর্ণভাবে সম্মান করবে। আর যখন তারা একে সম্মান করা ছেড়ে দিবে, তখন তারা ধ্বংস হয়ে যাবে।"(#তথ্য: সুনানু ইবনে মাজাহ, হাদীছ নং-৩১১০, মুসনাদে আহমদ, হাদীছ নং-১৯০৪৯)

   মুসলমান, তুমি কতই না সৌভাগ্যবান!

*** আমাদের প্রিয় নবীজি (ﷺ) বলেছেন, একজন ইমানদারের মর্যাদা এই পবিত্র কা'বার চেয়েও বেশি। 
যেমন, সুনানূ ইবনে মাজাহ শরীফে বর্ণিত হাদীছ। বিশিষ্ট সাহাবী হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রা:) বলেন, আমি আল্লাহর প্রিয় রাসূল (ﷺ)কে কা'বা শরীফের তাওয়াফরত অবস্থায় এ কথাটি বলতে শুনেছি যে,
مَا أَطْيَبَكِ وَأَطْيَبَ رِيحَكِ مَا أَعْظَمَكِ وَأَعْظَمَ حُرْمَتَكِ وَالَّذِي نَفْسُ مُحَمَّدٍ بِيَدِهِ لَحُرْمَةُ الْمُؤْمِنِ أَعْظَمُ عِنْدَ اللَّهِ حُرْمَةً مِنْكِ مَالِهِ وَدَمِهِ وَأَنْ نَظُنَّ بِهِ إِلاَّ خَيْرًا
"(হে কা'বা!) আল্লাহ তোমাকে কতই না পবিত্র করেছেন এবং পবিত্র করেছেন তোমাকে স্পর্শ করে প্রবাহিত হওয়া বাতাসকে! আল্লাহ তোমাকে কতই না সম্মানিত করেছেন এবং সম্মানিত করেছেন তোমার নিষিদ্ধতাকে!( কা'বা শরীফ এবং তার আশপাশে রক্তপাত, শিকার.... ইত্যাদি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ হওয়ার দিকে ইঙ্গিত) সেই মহান সত্তার শপথ, যার হাতে মুহাম্মদ (ﷺ) এর প্রাণ! একজন ইমানারের প্রাণ এবং সম্পদের সম্মান মহান আল্লাহর নিকট তোমার সম্মানের চেয়েও বেশি।(অতঃপর নবীজি ﷺ. বলেন,)  আমাদের উচিত ইমানদার সম্পর্কে সদা সর্বদা ভাল ধারণা পোষণ করা।"(সুনানু ইবনে মাজাহ, কিতাবুল ফিতান, হাদীছ নং-৪০৬৭)

*** যারা ইমানদারদের চড়-থাপ্পড়-লাথি মেরে, তাঁদের সম্পদ লুট করে কা'বা শরীফকে সম্মান দেখাতে যায়, তারা কতই না নির্বোধ!

প্রিয় নবীজি (ﷺ) বিদায় হজ্বের সময় বলেছেন,
ألا أُخبِرُكم بالمؤمنِ: مَن أمِنه النّاسُ على أموالِهم وأنفسِهم والمسلمُ مَن سلِم النّاسُ مِن لسانِه ويدِه والمجاهدُ مَن جاهَد نفسَه في طاعةِ اللهِ والمهاجرُ مَن هجَر الخطايا والذُّنوبَ.
" আমি কি তোমাদের পরিপূর্ণ মু'মিন সম্পর্কে অবহিত করব না? তোমাদের মাঝে পরিপূর্ণ মু'মিন হল সেই ব্যক্তি, যার নিকট পৃথিবীর সকল মানুষের জান-মাল নিরাপদ থাকে।
তোমাদের মাঝে (পরিপূর্ণ) মুসলিম হল সেই ব্যক্তি, যার হাত ও জিহ্বা থেকে সকল মানুষ নিরাপদ থাকে।
তোমাদের মাঝে (পরিপূর্ণ) মুজাহিদ হল সেই ব্যক্তি, যে আল্লাহর আদেশ-নিষেধ মেনে চলার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করে।
আর তোমাদের মাঝে প্রকৃত মুহাজির (ত্যাগকারী) হল সেই ব্যক্তি, যে পাপ কাজ ত্যাগ করেছে।(সহীহ ইবনে হিব্বান, হাদীছ নং-৪৮৬২)
অপর বর্ণনায় এসেছে। প্রিয় নবীজি (ﷺ) বলেন, "তোমাদের কেউ তখনই পরিপূর্ণ ইমানদার হতে পারবে, যখন সে নিজের জন্য যা কিছু পছন্দ করে তা অন্যের জন্যও পছন্দ করবে।"(সহীহ বুখারী, হাদীছ নং-১৩, সহীহ মুসলিম, হাদীছ নং-৪৫)
Previous Next

نموذج الاتصال