এমন অনেক উষ্ক-খুষ্ক লম্বা চুলধারী ধূলামলিন বিশিষ্ট লোক আছেন যারা আল্লাহর অলী | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস





সব পাগলকে পাগল মনে করিস নারে 
কিছু কিছু খোদার পাগলও অাছে।
♦সুতারাং সাবধান♦

⭕ হরযত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, 
"রাসুল ﷺ এরশাদ করেন, এমন অনেক উষ্ক-খুষ্ক লম্বা চুলধারী ধূলামলিন বিশিষ্ট লোক আছেন, যাঁদেরকে মানুষের দরজা থেকে বিতারিত করা হয়, অথচ তাঁরা যদি আল্লাহর কাছে কিছু দাবী করে, তাহলে আল্লাহ তাঁদের সে দাবী পূরণ করেন।"। 
(হাদিস নং-২৬২২; মূল মুসলিম শরীফ -মিশরী ছাপা)

তবে সাবধান! বর্তমানে অনেক ভন্ডরা সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিতে ফকিরি লেবাস ধরে উস্ক-খুস্ক চুল ধারণ করে ভন্ডামী করে, তাদের থেকেও আমাদের সতর্ক থাকাটা জরুরী।  প্রকৃতার্থে যাঁরা আল্লাহর ওলী তাঁদের জন্য দুনিয়া-আখিরাতে কোন ভয় নেই। যেমনঃ 

⭕ পবিত্র কোরআনে বর্ণিত হয়েছে,
"নিশ্চই যাঁরা আল্লাহর বন্ধু , তাঁদের না আছে
কোন ভয় ভীতি, না তাঁরা দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হবে।" 
[সুরা ইউনুস: ৬২]

⭕ উক্ত আয়াতের ব্যাখ্যায় হাদিস শরীফে বর্ণিত হয়েছে,
হযরত ওমর ইবনে খাত্তাব (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসুলে আকরাম ﷺ  এরশাদ করেছেন- প্রকৃত ওলীগণ একে অপরকে ভালবাসেন আল্লাহর কারণে, পরস্পরের মধ্যে কোন আত্মীয়তা বা রক্তের সম্পর্কের কারণে নয় এবং কোন প্রকার অর্থ-সম্পদ আদান-প্রদানের কারণেও নয়। আল্লাহর শপথ! নিশ্চয় তাঁদের চেহারা অতীব নূরানী ও প্রজ্জ্বলিত এবং তারা কিয়ামত দিবসে নূরানী মিম্বরের উপর আসীন হবেন। অন্যান্য সাধারণ মানুষ যখন ক্বিয়ামতের ভয়ে আতঙ্কিত থাকবে, তখন তাঁরা (ওলীগণ) কোন প্রকার ভয় করবেন না। যখন মানুষ চিন্তিত ও দুঃখিত হবে, তখন তাঁরা কোন প্রকার চিন্তা ও দুঃখ অনুভব করবেন না।

সূত্রঃ 
▪ মিশকাত_শরীফ
▪ তাফসীরে রূহুল বয়ান-সূরা ইউনুছ-৬২
▪ তাফসীরে জালালাঈন-সূরা ইউনুছ-৬২, পৃষ্ঠা-১৭৬