পেশওয়ারির আমি স্থাপনা | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

পেশওয়ারির আমি স্থাপনা
[ লেখক :: আরিফ ওয়াকিজ ]
এশিয়া বিখ্যাত দ্বিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামেয়া আহমদিয়া সুন্নীয়া আলিয়া, যাকে সকলে আজহারুল এশিয়া বা হিন্দ নামে জানে,


কোনো এক শুভরোজের ক্ষনে
এক দালানে গাঁ ঘেসে,
ভাবছি মনে ধ্যান হাড়িয়ে
আবেকে হায় দিল ভাসেঁ।

বলি,,,,,
ওহে হলুদ রঙ্গের দালান
তোরও কি প্রান আছে?
মিলবে নাকি প্রানের সন্ধান
তোর চৌখাটের কাছে?

কহে,,,,
ওহে শুন কান পেতে শুন
প্রান জাগন করি,
গাউছে জামান দিত সালাম
মোর সামনে পরি।

আমি জিন্দা আমি উর্বর
দ্বিনের শাক্ষী আমি,
আমি ছুটছি আমি উড়ছি
যায় বাতিলে ঘামি।

শেরে বাংলার রক্তের ফোটা
পেশওয়ারির আমি স্থাপনা,
রেজার মাসলক আমার ভিত্তি
কিসের ভয় আর ভাবনা?

আমার দলিল আমি দিবো
কে আছে বল আজি,
আমার তরে নাই কি ভাই
খোদা রসুল রাজি?

আমার বাতাসে শিতল বুঝি
প্রেমের বাগান হয় নি?
দিবা নিশি এই বাগেতে
পাহাড়া বুঝি দেয় নি,?

মৃতের কাছে কি শোভা পায়
এই সকল কর্ম?
আমি আছি থাকবো চিরোকাল
বুঝলি না মোর মর্ম।

বলি,,,,,
দালান, তোর কি বহু কস্ট
মনের গ্রহিন চরে,?
দুষ্ট মানব আসবে কি হায়
তোর ক্রেপার ঘরে,?

বলে,,,,,
আমি কিস্তি নুহের কিস্তি
প্রমান সর্ব পানে,
কেনান বুঝি কিস্তি চড়ে
তা সকলেই জানে,!

বলি,,,,
দালান, তোর দুওয়ারে কত পাগল
চুমু যে খায় যুকে!
কত পাপী লুটিয়ে গড়ায়
তোর মাঠির ঐ বুকে।

কহে,,,,
ওয়াকিজ মুনিবের দয়ার বানী
দেখিতে চাও গো মোরে,
দেখো জামেয়া নুহের কিস্তি
মন প্রান উজাড় করে।