নামাজের পর দরুদ পড়া ও হাত তোলে মুনাজাত | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

নামাজের পর আল্লাহর প্রশংসা ও রাসুল (দঃ) এর উপর দরুদ
পড়ে হাত তুলে দোয়া করা সম্পূর্ণ জায়েয । বরং রাসূল
দঃ তা করার জন্য আদেশ করেছেন । আলহামদু লিল্লাহ
আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের যত মসজিদ রয়েছে সব
মসজিদে জামাতের পর উচ্চস্বরে আল্লাহর প্রসংসা ও দরুদ
শরীফ পাঠ করা হয়। কিন্তু দুঃখের কথা কোন
ওয়াহাবি মসজিদে তা করা হয়না। উল্ঠো দেওবন্দি ও
লা মাজহাবিরা বিষয়টা কে অস্বীকার করে আর বিদাত
বলে ফতোয়া দেয়। আসুন দেখি এ ব্যাপারে রাসুল (দঃ)
আমাদের কি শিক্ষা দিয়েছেন….. ====================
==================== দলীল ১ ﻋﻦ ﻓﻀﺎﻟﺔ ﺑﻦ ﻋﺒﻴﺪ ﻗﺎﻝ ﻗﺎﻋﺪ ﺍﺫ ﺩﺧﻞ
ﺯﺟﻞ ﻓﺼﻠﻲ ﻓﻘﺎﻝ ﺍﻟﻠﻬﻢ ﺍﻏﻔﺮﻟﻲ ﻭﺍﺭﺣﻤﻨﻲ ﻓﻘﺎﻝ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠﻌﻢ ﻋﺠﻠﺖ ﺍﻳﻬﺎ ﺍﻟﻤﺼﻠﻲ ﺍﺫﺍ
ﺻﻠﻴﺖ ﻓﻘﻌﺪﺕ ﻓﺎﺣﻤﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﺑﻤﺎ ﻫﻮ ﺍﻫﻠﻪ ﻭﺻﻞ ﻋﻠﻲ ﺛﻢ ﺍﺩﻋﻪ ﻗﺎﻝ ﺛﻢ ﺻﻠﻲ ﺭﺟﻞ ﺍﺧﺮ ﺑﻌﺪ ﺫﺍﻟﻚ
ﻓﺤﻤﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﻭﺻﻠﻲ ﻋﻠﻲ ﺍﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻌﻢ ﻓﻘﺎﻝ ﺍﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻌﻢ ﺍﻳﻬﺎ ﺍﻟﻤﺼﻠﻲ ﺍﺩﻉ ﺗﺠﺐ হযরত
ফুদ্বালা ইবনে উবাইদ (র) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন আমাদের
মাঝে রাসুল (দঃ)বসা ছিলেন, এমতাবস্থায় এক লোক প্রবেশ
করে সালাত আদায় করল এবং দোয়ায় বলল, হে আল্লাহ !
আমাকে ক্ষমা করো , আমাকে রহম করো, তখন রাসুলুল্লাহ
(দঃ)বললেন ওহে মুসল্লি তুমি বড্ড
তাড়াহুড়ো করে ফেলেছ। যখন সালাত আদায় করবে অতঃপর
বসবে ও আল্লাহর প্রশংসা করবে এবং আমার উপর দরুদ পাঠ
করবে, তারপর আল্লাহর দরবারে দুআ করবে।
বর্ণনাকারী বলেন অতঃপর লোকটি সালাত আদায় করল
এবং শেষে আল্লাহর প্রশংসা করল ও নবীজির উপর দরুদ
পড়লো। তারপর আল্লাহর নবী (দঃ)তাকে বললেন
ওহে মুসল্লি এখন দুআ কর, তোমার দুআ কবুল হবে।.
[ তিরমিযি শরীফ, হাদিস নং ৩৩৯৮[. ====================
==================== দলীল ২ ﺍﺧﺮﺟﻪ ﺍﻟﺒﺨﺎﺭﻱ ﻓﻲ ﺍﻟﺼﺤﻴﺢ ﻋﻦ ﺳﻤﻊ
ﺍﻧﺴﺎ ﻋﻦ ﺍﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻌﻢ ﺍﻧﻪ ﺭﻓﻊ ﻳﺪﻳﻪ ﺣﺘﻲ ﺭﺍﻳﺖ ﺑﻴﺎﺽ ﺍﺑﻄﻴﻪ আল্লাহর নবী (সঃ)
উভয়হাত তুলে দোআ করেছেন এমনকি বগলের
শুণ্দ্রতা পর্যন্ত দেখা গেল। [সহীহ বুখারী, বাবু রফয়িন
নাসি আয়দিয়হিম মাআল ইমামি ফিল ইসতিসকায়ি । ৪/১৩৪]

==================== ==================== দলীল ৩
ﻗﺎﻝ ﺍﺑﻮ ﺩﺍﻭﺩ ﻓﻲ ﺍﺳﻨﻦ ﻋﻦ ﺍﻧﺲ ﺑﻦ ﻣﺎﻟﻚ ﻗﺎﻝ ﺭﺍﻳﺖ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠﻌﻢ ﻳﺪﻋﻮ ﻫﻜﺬﺍ ﺑﺒﺎﻃﻦ
ﻛﻔﻴﻪ ﻭﻇﺎﻫﺮ ﻫﻤﺎ _ হযরত আনাস রঃ হতে বণিত, তিনি বলেন আমি রাসূল
সঃ কে তার হাতের পেট দ্বারা দুআ করতে দেখেছি ।
[ সুনানে আবু দাউদ, ৪/২৮৬ হাদিস ১২৭২] ==================
== ==================== দলীল ৪ ﻋﻦ ﻋﻤﺮ ﺑﻦ ﺍﻟﺨﻄﺎﺏ ﻗﺎﻝ ﻛﺎﻥ
ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠﻌﻢ ﺍﺫﺍ ﺭﻓﻊ ﻳﺪﻳﻪ ﻓﻲ ﺍﻟﺪﻋﺎﺀ ﻟﻢ ﻳﺤﻄﻬﻤﺎ ﺣﺘﻲ ﻳﻤﺴﺢ ﺑﻬﻤﺎ ﻭﺟﻬﻪ হযরত
ওমর ফারুখ রঃ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন রাসূল সঃ যখন দোআ
করতেন তখন হাত তুলেই দোআ করতেন, আর মুখ
মোবারক না মুছে উভয় হাত নামাতেন না । ===============
===== ==================== দলীল ৫ ﻓﻮﻗﻒ ﻓﻲ ﺍﺩﻧﻲ ﺍﻟﺒﻘﻴﻊ ﺛﻢ
ﺭﻓﻊ ﻳﺪﻳﻪ ﺛﻢ ﺍﻧﺼﺮﻑ ﻓﻠﻤﺎ ﺍﺻﺒﺤﺖ ﺳﺎﻟﺘﻪ ﻓﻘﻠﺖ ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺍﻳﻦ ﺧﺮﺟﺖ ﺍﻟﻠﻴﻠﺔ ؟ ﻗﺎﻝ ﺑﻌﺜﺖ
ﺍﻟﻲ ﺍﻟﺒﻘﻴﻊ ﻻﺻﻠﻲ ﻋﻠﻴﻬﻢ হযরত আয়েশা সিদ্দীকা রঃ হতে বর্ণিত,
কোন এক রাতের অন্ধকারে আল্লাহর রাসূল সঃ জান্নাতুল বাকির
কবরস্হানে গিয়ে কবর যিয়ারত করলেন এবং হাত উঠিয়ে তাদের
জন্য দোআ করলেন। সকালে রাসূল দঃ কে জিঞ্জাসা করলাম
হে রাসূল দঃ আপনা কোথায় গিয়েছিলেন? তানা বললেন
আমি জান্নাতুল বাকীতে গিয়েছিলাম তাদের জন্য
দোয়া করতে। [সহিহ বুখারী, ১/৬৪ হাদিস ৮৮]
==================== ====================
উপরোক্ত আলোচনা থেকে সুস্পষ্টভাবে প্রতীয়মান
হয় যে নামাযের পর আল্লাহর প্রশংসা, দরুদ শরীফ, হাত
তুলে মোনাজাত ও কবর জিয়ারতের সময় হাত
তুলে দোয়া করা মূলত রাসূল দঃ এর সুন্নাতের অন্তর্ভুক্ত ।