জাবির (রাঃ) এর হাদিসে নুরের বিশ্লেষন (পর্ব ২) | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস


★ ইমাম বায়হাকী [Born : 384 AH/994 CE, Died : 458 AH/1066 CE]

তিনি উক্ত বিশুদ্ধ হাদীস শরীফ খানা নিজ কিতাবে সহীহ বলে উল্লেখ করেছেন বিখ্যাত মুহাদ্দিস আল্লামা বায়হাক্বী রহমাতুল্লাহি আলাইহি। ইমাম বায়হাক্কী রহমাতুল্লাহি আলাইহি সম্পর্কে বলা হয় – ” ইমাম বায়হাক্কী রহমাতুল্লাহি আলাইহি ছিলেন স্বীয় যুগের হাদীস শরীফ এবং ফিক্বাহ শাস্ত্রের অপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্যক্তিত্ব। উম্মত যাদের মাধ্যমে খুব উপকৃত হয়েছে এবং হাফিজে হাদীস এমন সাত ব্যক্তি ছিলেন তাদের যাদের গ্রন্থ সবচাইতে উৎকৃষ্ট বলে স্বীকৃত। সেই সাত জনের একজন হলেন, ইমাম বায়হাক্বী রহমাতুল্লাহি আলাইহি ।”

রেফারেন্স :

আসমাউর রেজাল-বাবু আইম্মাতুল হাদীস।

★ এই জগৎবিখ্যত মুহাদ্দিস ইমাম, আল্লামা বায়হাক্বী রহমাতুল্লাহি আলাইহি উনার কিতাবে বর্ননা করেন–

ان الله تعالي خلق قبل الاشياء نور نبيك

“….. নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক সর্ব প্রথম উনার নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর “নূর” মুবারক সৃষ্টি করেন।”

রেফারেন্স :

দালায়েলুন নবুওয়াত লিল বায়হাক্বী ১৩ তম খন্ড ৬৩ পৃষ্ঠা।

_________________________________________________

★ বিখ্যাত সুফী সাধক ইমাম আব্দুর রহমান জামী (রহঃ) [১৪১৪- ১৪৯২ ইং]

তিনি হাকিকতে নুরে মুহাম্মাদী (সাঃ) কে সর্বপ্রথম সৃষ্টি বলে রায় দিয়েছেন। যা জাবির (রাঃ) এর হাদিসের বর্ননাকে সাপোর্ট দেয়।





_________________________________________________

★ মোল্লা আলি কারী (রহ) [ওফাত ১০১৪ হিজরি] : 

মিরকাত শরহে মিশকাত : অধ্যায় : ইমান বিল ক্বদর
দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ :

এখানে ↓ কলম সৃষ্টির হাদিসটি বিবৃতি করে তার ব্যাখ্যায় অন্যান্য প্রথম সৃষ্টি গুলো সম্পর্কে আলোচনা করতে গিয়ে 
মোল্লা আলী কারী (রহ) বলেন, " বাস্তবিক পক্ষে প্রথম সৃষ্টি হচ্ছে নুরে মুহাম্মাদী (দুরুদ) যেমন আমি আমার আল মাওরিদ লিল মাওলিদ (১ম খন্ড ১৬৮ পৃষ্ঠা, হাদিস ৯৪) এ উল্লেখ করেছি।
যেমন বর্ননায় এসেছে - 
আল্লাহ পাক সর্বপ্রথম আমার নুর সৃষ্টি করেছেন,
অন্য বর্ননায় প্রথমে আমার রুহ সৃষ্টি করেছেন। (সংক্ষেপিত)







(ii) কিতাব : আল মওলিদুর রাভীঃ

এই "আল মওলিদুর রাভী" কিতাবে মোল্লা আলি কারী (রহঃ) -- 
``` নুর সম্পর্কিত জাবির (রা) এর হাদিসটিকে বিশুদ্ধ বলেছেন।```
``` অতঃপর নুর সম্পর্কে সুবিশাল আলোচনা করেছেন এবং সর্বপ্রথম নুরে মুহাম্মাদী (সাঃ) এর সৃষ্টি বলে মত দিয়েছেন।```


উক্ত কিতাবের নুর সম্পর্কিত সমস্ত আলোচনা দেখুন :










(iii) মোল্লা আলী কারি (রহ) বলেন,

সৃষ্টির সর্বত্র প্রিয় নবীর নুরানী সত্ত্বাই সর্বাধিক পরিচিত ও প্রকাশিত। আল্লাহ পাক তারই নুরানী সত্ত্বাকে সর্বাগ্রে সৃষ্টি করেছেন।

Reference :

মওদ্বুয়াতুল কবীর : ৮৬ পৃষ্ঠা

(iv) তিনি আরো বলেন,
"সর্বপ্রথম সৃষ্টি সেই মহান নুর যার দ্বারা রাসুল পাক (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) কে সৃষ্টি করা হয়েছে।

Reference :

শরহে শামায়েলে তিরমিযি ১ম খন্ড, ১৪৬ পৃষ্ঠা


______________________________________________________


★ ইমাম সুয়ুতী (রহ) তাখরিজ হাদিস (শরহে মাওয়াকিফ) এ বলেন, এর কোন নির্ভরযোগ্য সনদ নেই।
এই কিতাবটি তিনি আগে লিখেছিলেন তখন হয়ত তিনি ওই হাদিসের সনদ পান নি কিন্তু পড়ে যখন পেয়েছেন তখন তার সমর্থনে "খাইসাইসুল কুবরায় পুনরায় সংশোধন স্বরুপ সমাধান দিয়ে গেছেন। যেমন,

★ আল-ঘুমারি (ওহাবী মুহাদ্দিস) বলেন, ইমাম সুয়ুতী (রহ) তার ""খাসাইস"" কিতাবে এই হাদিসটি ইমাম আব্দুর রাজ্জাক (রহ) এর থেকে বর্ননা বলে সমর্থন দিয়ে লিখেছেন।


★ উল্লেখ্য যে,
**“আল্লামা সুয়ুতী (রহ:) এর [জন্ম ৮৪৯ হিজরী আর ওফাত ৯১১ হিজরী]
** অপর দিকে আল্লামা মুহাম্মদ ইবনে আহমদ কুস্তালানি রহঃ এর [জন্ম ৮৫১ হিজরী আর ওফাত ৯২৩ হিজরী] ।

______________________________________________________


★ ইমাম আবুল হাসান আশআরী (রহ) বলেন,

আল্লাহ পাক নুর তবে অন্যান্য নুরের মত নন। আর নবী করিম (সা) এর রুহ মুবারক হচ্ছে তার (আল্লাহর) নুরের ঝলক। আর ফেরেশতাগন হচ্ছেন তার (রাসুলের) নুরের শিখা। যেমন রাসুল (সা) ইরশাদ করেন,

"আল্লাহ পাক সর্বপ্রথম আমার নুর সৃষ্টি করেছেন আর আমার নুর থেকে আল্লাহ প্রত্যেক কিছু সৃষ্টি করেছেন।

Reference :

ইমাম মাহদী আল ফার্সী : মাতালিউল মুসাররাত : ২১ পৃ:


★ ইমাম যুরকানী (রহ) বলেন,

হাদিসে পাকে সর্বপ্রথম সৃষ্টি হিসেবে "আকল" "কলম" ও " আমার নুর" তিনটি বস্তু মুলত নবীকুল সম্রাট এর নুর মুবারককেই বুঝানো হয়েছে। সর্বাগ্রে, নিরেট ও নির্ভেজাল অস্তিত্বময় একমাত্র তারই সত্ত্বা।

Reference :

শরহে মাওয়াক্কিফ : ৭ম খন্ড : ২৫৪ পৃ

★ ইমাম শারানী (রহ) বলেন,

নুর কিংবা আকল পরস্পর বৈপরিত্য নেই। এগুলো হাকিকতে মুহাম্মদী (সা) এর বহুমুখী পরিচিতি।

Reference :

ইমাম শারানী : ইয়াকুত ওয়াল জাওয়াহির : ২য় খন্ড ২০ পৃ


★ ইমাম মুহম্মদ মাহদ ইবনে আহমদ ফার্সী রহমাতুল্লাহি আলাইহি উক্ত হাদীস শরীফকে ""সহীহ "" বলে নিজের কিতাব মুবারকে উল্লেখ করেছেন। তিনি বর্ননা করেন – 

اول ما خلق الله نوره ومن نوري خلق كل شءي

অর্থ : মহান আল্লাহ পাক সর্বপ্রথম আমার নূর মুবারক সৃষ্টি করেন এবং আমার নূর মুবারক থেকে সবকিছু সৃষ্টি করেন।”

দলীল-
√ মাতালেউল মাসাররাত ২৬৫ পৃষ্ঠা ।

★ Fasi (Muhammad ibn Ahmad d. 1052) cites it as evidence in Matali` al-masarrat (p. 210, 221 of the Matba`a al-taziyya edition) and says: "These narrations indicate his primacy (awwaliyya) and priority over all other creations, and also the fact that he is their cause (sabab)."

★ Diyarbakri (Husayn ibn Muhammad d. 966): He begins his 1,000-page history entitled Tarikh al-khamis fi ahwal anfasi nafis with the words: "Praise be to Allah Who created the Light of His Prophet before everything else," which is enough to disprove al-Ghumari's exaggerated claim that "anyone who reads it will be convinced that the hadith is a lie." Then Diyarbakri cites the hadith as evidence (1:19 of the Mu'assasat Sha`ban edition in Beirut).


★ ইমাম ইবনে হাজর হায়তামী [ওফাত ৯৭৪ হি] :

তিনি তার বিখ্যাত ফতোয়ার কিতাব [Fatawa hadithiyya (p. 247 of the Baba edition in Cairo)] তে বলেছেন যে এই হাদিসটি ইমাম আব্দুর রাজ্জাক (রহ) বর্ননা করেছেন এবং তিনি তার রচিত কবিতায় মধ্যেও এটা বলেছেন।
ইবনে হাজর হায়তামী তার বিখ্যাত গ্রন্থ [Al-Ni`mat al-kubra `ala al-`alamin (p. 3)]


★ মোল্লা আলি কারী (রহ) [ওফাত 1014 হিজরি]
তিনি বলেন,

ومنه قوله اول ما خلق اللّه نورى وفى رواية روحى ومعناهما واحد فان الارواح نورانية اى اول ما خلق اللّه من الارواح روحى

প্রথম বস্তু যা আল্লাহ পাক সৃষ্টি করেছেন তা হল আমার নুর এবং অন্য বর্ননায় এসেছে যে "রুহ" এবং এই দুইটার অর্থ একই কারন "রুহ" হল নুরানী। এই হাদিসের অর্থ এটাও যে আল্লাহ সমস্ত "রুহের" সৃষ্টির পুর্বে আমার "রুহ" পাক সৃষ্টি করেছিলেন। [Mirqaat alMafateeh]


★ আলি ইবনে বুরহান উদ্দিন হালাবী [ওফাত, ১০৪৪ হিজরি] তিনি বিখ্যাত [As- Sirah Al-Halabi (1:31 of the Maktaba Islamiyya edition in Beirut)] কিতাবে দলিল হিসেবে বর্ননা করে বলেন, এই হাদিস টি এটাই প্রমান করে যে সমস্ত সৃষ্টির মুল হল রাসুলুল্লাহ (সা) কে সৃষ্টি এবং আল্লাহ ভাল জানেন।"

★ ইসলাইল হাক্কী [বিখ্যাত মুফাসসির, ওফাত ১১৩৭] তিনি তার বিখ্যাত তফসীর ""রুহুল বয়ান"" বলেন, আল্লাহ পাক সর্ব প্রথম রাসুলুল্লাহ (সা) এর নুর মুবারক সৃষ্টি করেছেন এবং ওনার (অস্তিত্বের) কারনেই সমস্ত কিছুর (অস্তিত্ব) সৃষ্টি। ইমাম ইউসুফ নাবহানী (রহ) তার [Jawahir al-bihar (p. 1125)] কিতাবে এই হাদিসটি দলিল স্বরুপ বর্ননা করেছেন।


★ ইমাম আজলুনী (রহ) বলেন, " এ ইমাম আব্দুর রাজ্জাক (রহ) এর রেওয়াত যিনি নিজ সনদে তা বর্ননা করেছেন "From : 'Ajluni (Isma`il ibn Muhammad d. 1162)
Book : Kashaf Al Khifa
Volume : 1
Page : 311
Hadith number : 827

★ ইমাম ইয়দারুসি (রহ) বলেন," এ ইমাম আব্দুর রাজ্জাক (রহ) এর রেওয়াত যিনি স্বয়ং নিজ সনদে বর্ননা করেছেন "
From : 'Iydarusi
Book : Tarekh An Nur as Saafir
Volume : 1
Page : 8


★ ইমাম আহমদ আবেদিন শামী (রহ) [(1198–1252 AH ]
 হানাফী মাযহাবের বিশ্ববিখ্যাত শ্রেষ্ঠ ফতোয়া ""ফতোয়ায়ে শামী"র প্রনেতা তিনি একে দলিলস্বরুপ গ্রহন করেছেন,"


★ মালিকি আল-হাসানী (মুহাম্মদ ইবনে আলাভী) তিনি মোল্লা আলি কারি (রহ) এর মিলাদ সম্পর্কিত বইয়ের ব্যাখ্যাগ্রন্থ "" [Hashiyat al-Mawrid al-rawi fi al-mawlid al-nabawi (p. 40)] বলেন :

** "নুর সম্পর্কিত জাবির (রা) এর হাদিসটির সনদ (Chain) কোন রকম আপত্তি ব্যতিরেকে সহীহ (Sound) কিন্তু বিভিন্ন Scholars এর বিষেশত্ব অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন ভাবে বর্ননা করেছেন।

**"ইমাম বায়হাকীও এটা সামান্য পরিবর্তন সহকারে বর্ননা করেছেন।" তারপর তিনি বলেন বিভিন্ন বর্ননা রাসুলুল্লাহ (সা) এর নুর সম্পর্কিত বর্ননাকে প্রতিষ্ঠা করেছে।

★ বিখ্যাত মুহাদ্দিস, আল্লামা আবুল হাসান বিন আব্দিল্লাহ আল বিকরী রহমাতুল্লাহি আলাইহি বলেন — 

قال علي رضي الله عنه كان الله ولا شيء معه فاول ما خلق نور حبيبه قبل ان يخلق الماء والعرش والكرسي واللوح والقلم والجنة وانار والحجاب

অর্থ: হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু আনহু ওয়া আলাইহিস সালাম বলেন, শুধুমাত্র আল্লাহ পাক ছিলেন, তখন অন্য কোন অস্তিত্ব ছিলো না। অতঃপর তিনি পানি,আরশ,কুরসী, লওহো,ক্বলম,জান্নাত, জাহান্নাম ও পর্দা সমূহ ইত্যাদি সৃষ্টি করার পূর্বে উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নূর মুবারক সৃষ্টি করেন।”

দলীল-
√ আল আনওয়ার ফী মাওলিদিন নাবিয়্যিল মুহম্মদ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ৫ পৃষ্ঠা।



★ ইমাম আব্দুল গনী নাবলুসী (রহ) হযরত যাবির (রা) এর সনদ সম্পর্কে বলেন,
"রাসুলুল্লাহ (সা) এর নুর মুবারক থেকে সবকিছু সৃষ্টি। উক্ত বর্নিত হাদিসটির সনদ সহিহ।

Reference :

ইমাম নাবলুসী : হাদিকাতুল নাদিয়া : ২/৩৭৫ পৃ:


★ বিখ্যাত মুফাসসির আল্লামা ইসমাইল হাক্কী (রহ) :

সুরা যুখরুফ ৮১ নং আয়াতের ব্যাখ্যায় একটি হাদিস উল্লেখ করেন,
ইমাম জাফর সাদেক (রহ) বলেন,
আল্লাহ পাক সর্বপ্রথম নুরে মুহাম্মাদী (সা) কে সৃষ্টি করছেন।

Reference :

ইসমাইল হাক্কী : রুহুল বয়ান : ৮/৩৯৬ পৃ: সুরা যুখরুফ : ৮১

★ হযরত আব্দুল কাদীর জিলানী (রহ) বলেন,
পরম গৌরবান্বিত ও মহিমান্বিত আল্লাহ পাক বলেছেন,
আমি আমার নিজ জাতের কুদরতী জামালের নুর হতে মুহাম্মদ (সা) এর রুহ সৃষ্টি করেছি।
এর প্রমান হল রাসুলুল্লাহ (সা) এর হাদিস আল্লাহ পাক সর্বপ্রথম যা সৃষ্টি করেছেন তা হল আমার নুর মুবারক।

Reference :

ইমাম শাতনুফী : বাহজাতুল আসরার : ১২ পৃ

★ ইমাম বদরউদ্দিন আঈনি (রঃ) বলেনঃ


,”আল্লাহ্‌ সর্বপ্রথম মুহাম্মদ (সঃ) এর নূর মোবারক সৃষ্টি করেছেন। “

[Umdat ul Qari, Sharh Sahih Bukhari, Volume No. 15, Page No. 109]



★ ইমাম নিশাবুরি (নিজামউদ্দিন ইবনে হাসান, ওফাত ৭২৮ হি:) দলিলস্বরুপ (evidence হিসেবে) গ্রহন করেছেন, "
[সুরা জুমার (৩৯.১২) ‘ আমাকে আরো নির্দেশ দেয়া হয়েছে যেন আমি প্রথম মুসলিম হই।’] এই আয়াতের তফসীরে [Ghara'ib al-Qur'an (8:66 of the Baba edition in Cairo).]


★ ইমাম ইউসুফ আল-সাইয়্যিদ হাসিম (রিফাই) বলেন যে এটা ইমাম আব্দুর রাজ্জাক (রহ) বর্ননা করেছেন এবং এটা দলিল স্বরুপ।
Adillat ahl al-sunna wa al-jama`a al-musamma al-radd al-muhkam al-mani` (p. 22)



★ আব্দুল হাই লাখনভী (মৃত্যু ১৩০৪) :


(i) আব্দুল হাই লাখনভী তার [ al-Athar al-marfu`a fi al-akhbar al-mawdu`a (p. 33-34 of the Lahore edition) ] বলেন :

"মুহাম্মদ (সা) এর নুর সম্পর্কিত হাদিসটি (al-nur al-muhammadi)
প্রাথমিকভাবে ইমাম আব্দুর রাজ্জাক ইবনে হুমাম (রহ) এর বর্নিত হাদিসের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত, যা যথার্থভাবে সমস্ত সৃষ্ট বস্তুর উপরে (রাসুলুল্লাহ সা. এর নুরকে) নির্দিষ্টভাবে অগ্রাধিকার দেয়।

(ii) আব্দুল হাই লাখনাভী লিখেছেনঃ
হুজূর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর শরীর মোবারাকের কোন ছায়া ছিল না, কারণ তিনি ছিলেন নূর।
(তালিকুল আযিব লি হাল্লি হাসিয়াতুল যালালি মানতিকিত তাহাযিল)

______________________________________________________

★ উপমহাদেশের বিখ্যাত ইমাম আল্লামা শফী উকারবী (রহঃ) : তার যিকর-ই-হাসীন কিতাবে অত্যন্ত সুন্দর ভাবে নুরনবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) সম্পর্কে এই হাদিসটি বিস্তারিত বর্ননা করেছেনঃ

















______________________________________________________


★ হাকিমুল উম্মাহ মুফতী ইয়ার খান নইমী (রহঃ)

কিতাবঃ মিরাতুল মানাজীহ শরহে মিশকাতুল মাসাবিহ

মোল্লা আলী কারি (রহঃ) এর মিরকাত শরহে মিশকাত এর মত একই
অধ্যায় : ইমান বিল ক্বদর
দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ : এর অনুরুপ ব্যাখ্যা দিয়েছেন অতি সংক্ষেপেঃ