আলা হযরত ইমাম আহমদ রেযা খান(রহ.)-এর সংক্ষিপ্ত জীবনী। | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

আলা হযরত ইমাম আহমদ রেযা খান(রহ.)-এর সংক্ষিপ্ত জীবনী।

আহমদ রেজা খান বেরলভী (উর্দু: ﺍﺣﻤﺪ ﺭﺿﺎﺧﺎﻥ ﺑﺮﯾﻠﻮﯼ ‎‎, হিন্দি: अहमद रज़ा खान, ১৪ জুন ১৮৫৬ খ্রিষ্টাব্দ বা ১০ সাওয়াল ১২৭২ হিজরি - ২৮ অক্টোবর ১৯২১ খ্রিষ্টাব্দ বা ২৫ সফর ১৩৪০ হিজরি), ইমাম আহমদ রেজা খান, ইমাম আহমদ রেজা খান কাদেরী, বা আ'লা হযরত নামেও পরিচিত যিনি একজন বিশিষ্ট মুসলিম মনীষী, সুফী এবং ব্রিটিশ ভারতের সমাজ সংস্কারক। সুন্নি ইসলামের মধ্যে বেরলভী আন্দোলনে তিনি ছিলেন প্রধান উদ্যোক্তা।[২][৩][৪] তার অনুসারীরা তাকে চতুর্দশ হিজরীর (ঊনবিংশ-বিংশ শতাব্দীর) মুজাদ্দিদ মনে করে। তার লেখার বিষয়বস্তুতে আইন, ধর্ম, দর্শন এবং বিজ্ঞান সহ বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত ছিল। তিনি ইসলামী আইন-কানুনের উপর প্রায় সহস্রাধিক গ্রন্থ রচনা করেছেন।[৩]

আহমদ রেজা খাঁন বেরলভী
ﺍ ﺣﻤﺪ ﺭﺿﺎ ﺧﺎ ﻥ ﺑﺮﯾﻠﻮﯼজন্ম১৪ জুন ১৮৫৬[১]
বেরেলী, উত্তর-পশ্চিম প্রদেশ, ব্রিটিশ ভারতমৃত্যু২৮ অক্টোবর ১৯২১ (বয়স ৬৫)
বেরেলী, ইউপি, ব্রিটিশ ভারতজাতীয়তাব্রিটিশ ভারতীয়যুগআধুনিক যুগঅঞ্চলদক্ষিণ এশিয়াধারাবেরলভী, সুন্নীআগ্রহতাফসীর, হাদিস, আকীদা মাতুরিদী-আশাইরা, ফিকহ, সুফিবাদ, রাজনীতি, অর্থনীতি, সংস্কৃতি

ভাবগুরু

হযরত মুহাম্মদ (সা.), আব্দুল কাদের জিলানী, মইনুদ্দিন চিশতী, জালাল উদ্দিন মুহাম্মদ রুমি, শেখ সাদী, ফজলে হক খায়রাবাদি

ভাবশিষ্য

হামিদ রেজা খান, মুস্তাফা রেজা খান, মুহাম্মদ আব্দুল গাফুর হাযারাভী, আহমদ সাঈদ কাজেমী, মুহাম্মদ আবদুল আলিম সিদ্দিকী, মুফতি আখতার রেজা খান আল কাদেরী, মুহাম্মদ ইলিয়াস কাদেরী।

জীবনকাল

জন্ম ও বংশীয় পরিচয়

আহমাদ রেজা খাঁন ১৪ জুন ১৮৫৬ সালে ব্রিটিশ ভারতের বেরেলী শহরের জাসলী মহল্লাতে জন্ম গ্রহণ করেন। জন্মের সময় তার নাম রাখা হয় মোহাম্মাদ।[৫] আ’লা হযরত ইমাম আহমাদ রেজা খাঁন বেরলভীর পিতা নকী আলী খান।[৬][৭] পিতামহ ছিলেন রেজা আলী খান; তার পিতা হযরত মাওলানা শাহ রেজা আলী খাঁন, তার পিতা হযরত মাওলানা হাফিজ শাহ্ কাজিম আলী খাঁন, তার পিতা হযরত মাওলানা শাহ্ মুহাম্মদ আজম খাঁন, তার পিতা হযরত মাওলানা শাহ্ সা’আদাত ইয়ার খাঁন, তার পিতা হযরত মাওলানা শাহ্ সাঈদ উল্লাহ্ খাঁন। আ’লা হযরতের পূর্ব পুরুষ অর্থাৎ হযরত মাওলানা শাহ্ সাঈদ উল্লাহ খাঁন রাজ পরিবারের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি মুঘল শাসনামলে লাহোর পদার্পণ করেন এবং সেখানে তিনি বিভিন্ন সম্মানিত পদে অলংকৃত হন।

মৃত্যু

তিনি শুক্রবার, ১৯২১ সালের ২৮ অক্টোবর (২৫ সফর ১৩৪০ হিজরি) ৬৫ বছর বয়সে বেরেলী শহরের নিজগৃহে মৃত্যুবরণ করেন

বই

আহমদ রেজা খান আরবী, উর্দু এবং ফারসি ভাষায় বিভিন্ন বিষয়ে সহস্রাধিক বই লিখেছেন। তার বিভিন্ন বই ইউরোপীয় এবং দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন ভাষাতে অনূদিত হয়েছে।[৮][৯] মূলধারার সুন্নীদের মতে তার বইপত্রে অনেক ভুল আছে।[১০]

কানজুল ঈমান (কুরআনের অনুবাদ)

মূল নিবন্ধ: কানজুল ঈমান

কানজুল ঈমান (Urdu and Arabic: ﮐﻨﺰﺍﻻﯾﻤﺎﻥ ) হল সুন্নি মুসলিম আহমদ রেজা খাঁন কর্তৃক ১৯১০ সালে কোরআন শরিফের উর্দু ভাষায় অনূদিত গ্রন্থ। এটি হানাফী মাযহাবের আইনসমুহকে সমর্থন করে[১১]। এটি ভারত উপমহাদেশের সর্বাধিক পঠিত কোরআনের অনুবাদ গ্রন্থ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]এই গ্রন্থটি ইউরোপ ও দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে যার মধ্যে রয়েছে ইংরেজী, হিন্দি, বাংলা, ডাচ, তুর্কী, সিন্ধি, গুজরাটী এবং পশতু। বাংলা ভাষায় কানযুল ঈমান গ্রন্থটি অনুবাদ করেছেন আল্লামা এম. এ. মান্নান। এর ভুমিকায় পূর্বসূরী অনেক অনুবাদকের সাথে তুলনা এনে একথা প্রমাণের চেষ্টা করা হয়েছে যে তার অনুবাদটি শ্রেষ্ঠ, এটাকে আশোভনীয় বলে মনে করা হয়। এমনকি শায়েখ আহমদ রেজা খানের পূর্বসূরী শিক্ষক ইমাম শাহ ওয়ালী উল্লাহর অনুবাদের চেয়ে ছাত্রের অনুবাদ শ্রেষ্ঠ প্রমাণের চেষ্টা করা হয়েছে।[১২]

ফতোয়া-ই-রেজভিয়া

মূল নিবন্ধ: ফতোয়া-ই-রেজভিয়া

এই ফতোয়া গ্রন্থটির ব্যাপারে প্রথম অরুন শৌরি তার গ্রন্থে উল্লেখ করেন যে, এটি একটি ফতোয়া বা ইসলামি নিয়মকানুন সমৃদ্ধ গ্রন্থ।[১৩] ১২ খন্ডের এই ফতোয়া গ্রন্থটি লেখকের জীবদ্দশায় তার ভাই সর্ব প্রথম হাসানি প্রেস থেকে প্রকাশ করেন, এছাড়া ও বিভিন্ন ফতোয়ার মাত্র দুই খন্ড তার জীবদ্দশায় প্রকাশিত হয়।[১৪] বিভিন্ন সুন্নি প্রকাশনী থেকে এই গ্রন্থটি ৩০ খন্ডে প্রকাশিত হয়। এই গ্রন্থে ধর্ম থেকে শুরু করে ব্যবসা, যুদ্ধ থেকে শুরু করে বিবাহ, দৈনন্দিন জীবনের সমস্ত সমস্যার সমাধান রয়েছে।[১৫][১৬][১৭] রেযা একাডেমি ১৯৮৫ খ্রিষ্টাব্দে প্রথম গ্রন্থটির বিভিন্ন খন্ড প্রকাশ করেছিল।[১৮]

হাদায়েকে বখশিশ

এ গ্রন্থটি আলা হযরতের নাত সমগ্র। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) নিয়ে লেখা অসংখ্য নাত এ গ্রন্থটিতে লিপিবদ্ধ আছে। আহমদ রেজা খাঁনের লেখা বিখ্যাত নাত মুস্তফা জানে রহমত পেঁ লাখো সালাম এ গ্রন্থের অন্তর্ভুক্ত। নবীপত্নী আয়শা সিদ্দিকা (রা.) সম্পর্কে এতে আপত্তিকর কবিতা থাকার অভিযোগ রয়েছে।

হুসসামুল হারামাঈন

গ্রন্থটি আলা হযরত আল মো’তামাদ ওয়াল মোস্তানা নামে আরবিতে রচনা করেন। এতে হিন্দুস্থানের ৫ জন আকাবিরীনে দেওবন্দ ওলামার কিতাব সমূহের বিভিন্ন উর্দু উদ্ধৃতি উল্লেখ করে নিজে এগুলোর আরবী অনুবাদ করে ১৩২৪ হিজরীতে মক্কা ও মদিনার ৩৩ জন মুফতির নিকট কাছে পাঠিয়ে তাদের মতামত চান। হারামাঈন শরীফাইনের ৩৩ জন মুফতি গ্রন্থটি পর্যালোচনা করে উক্ত ৫ জন দেওবন্দ ওলামাকে কাফের ঘোষণা করেন। মুফতিগণের উক্ত ফতোয়ার নাম হয় হুসসামুল হারামাঈন বা মক্কা-মদিনার তীক্ষ্ণ তরবারী। অন্যদিকে দেওবন্দ আলেমগণ দাবি করেছেন যে, আহমদ রেজা খান তাদের নামে মিথ্যা কথা লিখে মক্কা ও মদিনার মুফতিদের নিকট পাঠিয়েছিল।[১৯]

অন্যান্য বই

আল মো’তামাদ ওয়াল মোস্তানা

আল আমান ও ওয়া উলা

আলকাউকাবাতুস সাহাবিয়া

আল ইস্তিমাদ

আল ফুয়োজুল মাক্কীয়া

আল মিলাদুন নবিয়াহ

ফাউজে মুবিন দার হারকাতে যামীন

সুবহানুস সুবহ

সাল্লুস সায় য়াফুল হিন্দীয়া

আয যুবদাতুয যাক্কিয়া

আবনা উল মুস্তাফা

আনগুত্তে চুম্মে কা মাসলা

বাংলায় অনূদিত কিতাব

তফসীরে খাজাইনুল ইরফান ও তরজুমায়ে কানজুল ইমান

তফসীরে নুরুল ইরফান ও তরজুমায়ে কানজুল ইমান

ইরফানে শরীয়ত

খতমে নবুওয়াত

আহকামে শরীয়ত

নিদানকালে আশীর্বাদ

গাউসুল আজম ও গাউছিয়াত

কুরআন–হাদিসের আলোকে শাফায়াত

দৃঢ় বিশ্বাসের চেতনায় নবীকূল সম্রাট (ﷺ)

নুরুল মোস্তফা (ﷺ)

মাতা-পিতার হক (হাক্কুল-ওয়ালেদাইন)

প্রিয়নবীর পূর্ব পুরূষগণের ইসলাম

আদ্দৌলাতুল মাক্কিয়াহ বিল মাদ্দাতিল গায়বিয়াহ

হুসামুল হারামাইন

শরীয়ত ও তরীক্বত

ওয়াহাবীদের ভ্রান্ত আক্বীদাহ ও তাদের বিধান

ইরশাদে আ'লা হযরত (রহঃ)

আল অজীফাতুল কারীমা (বঙ্গানুবাদ)

সত্যের সন্ধান ও কবরে আজান

তাজিমী সিজদা - অনুবাদকঃ এস.এম. আশরাফ আলী আল কাদিরী (প্রথম অনুবাদক । পরবর্তীতে অন্য অনুবাদকের অনুবাদও প্রকাশ হয়েছে ।)

আল ওয়াজিফাতুল কারিমা - অনুবাদকঃ এস.এম. আশরাফ আলী আল কাদিরী ।

বায়'আত ও খিলাফতের বিধান

ফেরেশতাহ সৃষ্টির ইতিবৃত্ত

ফতোয়ায়ে আফ্রিকা

ইমানের সঠিক বিশ্লেষণ

তাহমিদে ইমান বিদআতিল কুরআন

রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর অবমাননা কারীর শরয়ী সাজা

কালামে রেযা

(হাদায়েকে বখশিশ থেকে নির্বাচিত নাত ও কাব্যানুবাদ)

কালামুল ইমামে ইমামুল কালাম (মোস্তফা জানে রহমাত পে লাখো সালাম এর কাব্যানুবাদ)

মহিলাদের জন্য মাজার জিয়ারতের বিধান (মাওলানা মুহাম্মদ জমির হোসাইন ক্বাদেরী)

সমাধিস্থল:

মূল নিবন্ধ: দরগাহ-এ-আলা হযরত

আ'লা হযরতের সমাধিস্থল ভারতের উত্তর প্রদেশের বেরেলী জেলার কারোলানে অবস্থিত। এটি দরগাহ-এ-আলা হযরত নামে পরিচিত

তথ্যসূত্র:
উইকিপিডিয়া।
সংকলক:
স্বাধীন আহমদ(সগে মাদীনা)।