কোরানের বাংলা অনুবাদের ভাষা ও ভাষার সৌন্দর্য পরিবর্তন | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

কোরানের বাংলা অনুবাদের ভাষা ও ভাষার সৌন্দর্য পরিবর্তন
আজকে লা মযহাবী এক ভাই কোরানের একটি বাংলা অনুবাদের লিংক দিলেন আমাকে আর বললেন নতুন তাফসী পড়েন অনেক ভাল আমি তার ফেইসবুকে গিয়ে দেখলাম সূরা বাকারার ১৭০-১৭১ নং আয়াতের একটি বাংলা অনুবাদ করা আছে সেখানে দেখলাম (বাপ দাদার)নামে একটি শব্দ তখন একটু ভাবলাম কোরানের তাফসীরে আবার এরকম বেয়াদব মুলক ভাষা কোথায় আসলো আমার কাছে ৭ টি তাফসীর আছে এর মধ্যে আমি ইবনে কাসির টা খুললাম খুলে দেখি ওখানে লিখা আছে (পূর্ব পুরুষগণ)এই শব্দটি আছে আরো তাফসীর দেখলাম (পূর্ব পুরুষগণ)এই শব্দটিই পেলাম এত সুন্দর একটি শব্দ থাকতে কেন এই নতুন তাফসীর কারক এই বেয়াদব মুলক অসুন্দর শব্দটি কেন ব্যবহার করলেন এর কি কোন জবাব আছে লা মাযহাবী ভাইদের কাছে কোরান তো অনেক সুন্দর জিনিস তো সেখানে বাংলা অনুবাদের ভাষায় যদি সুন্দর না হয় তাহলে সাধারণ মুসল্লিগণ কি করে সুন্দর ভাবে কথা বলবে একটু জবাব দিবেন..আশা করি...
পূর্ব পুরুষ বলতে আমরা কি বুঝি...শুধু কি বাপ দাদাই নাকি আরো অনেকেই আছেন....প্রিয় পাঠকগণ একজন বেকুব সে ও বুঝে পূর্ব পুরুষগণ বলতে কাদেরকে বুঝায় আর লা মাযহাবী ভাইয়েরা পূর্ব পুরুষগণদের বদলে শুধু মাত্র বাপ দাদার কথা বলে চালিয়ে দিলেন কোরানের তাফসীরে এরকম আরো কত জালিয়াতী এবং ভাষার সৌন্দর্য পরিবর্তন করেছেন আল্লাহ পাকই ভাল জানেন..তাই আশাকরি নতুন কোন কোরানের তাফসীর দেখে সেটা ফরমালিনের মত গিলে নিবেন না...কারন এটাই আপনারা জাহান্নামের কারণ হতে পারে...রাসূল (দ:)থেকে শুরু করে আমাদের ইসলামের সঠিক পূর্ব পুরুষগণ কোন কোন তাফসীর লিখেগেছেন সে গুলি অনুসরণ করুন..যেমন..তাফসীরে ইবনে আব্বাস..তাফসীর ইবনে কাছির ই:ফা:..তাফসীরে মাযহারী..তাফসীর কানযুল ঈমান ইত্যাদি.