প্রসঙ্গ ইমামে আযম ১ম খলীফা হযরত আবু বক্কর (রা:) থেকে হাদীস বর্ণনার সনদ | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস


আসসলামু আলাইকুম ওয়া রাহমতুল্লাহি ওবারাকাতুহ
শরু করছি পরম করুণাময় সেই প্রেমময় জাল্লে জালালু আহাদময় অসীমদয়ালু আল্লাহ সুবাহানু তাআলা তার পেয়ারে নূরময় হাবীবশাফেয়ীন মুজনেবিন রাহমাতালাল্লিল আলামিন আহমদ মোস্তফা মুহাম্মদ মোস্তফা (সা:) উনার উপর দুরুদ পেশ করে এবং আমার দাদাহুজুর আক্তার উদ্দিন শাহ আমারমূর্শীদ কেবলা দয়ালমোখলেছ সাই এর সরণে...
 (প্রসঙ্গ ইমামে আযম ১ম খলীফাহযরত আবু বক্কর(রা:)থেকে হাদীসবর্ণনার সনদ)
ইমামে আযম সরাসরি কিছুসাহাবার সাথে সাক্ষাত লাভ তাদেরথেকে হাদীস বর্ণনা করায় তাবেয়ীর মর্যাদা লাভ করেছেন যা বাকী ইমামের সৌভাগ্য হয়নি.তাছাড়া তিনি ১ম সারিরতাবেঈগণদের সূত্রে খোলাফায়ে রাশেদীন অন্যান্য সাহাবায়ে কেরাম থেকেহাদীস ইতিহাস রচনাকরে গিয়েছেন যা সংক্ষিপ্তাকারে তুলেধরলাম আপনাদের সামেন ভূল ত্রুটি হলে ক্ষমার চোখে দেখবেন.
হযরত আবু বক্কর (রা:)পর্যন্ত ২টি ভিন্নসনদ :- ইমামে আযম হযরত আবু বক্করসিদ্দিক (রা:)ওনারনাতি হযরত কাসেমইবনে মুহাম্মদ ইবনে আবী বকর (রা:) ইমাম মাইমুন ইবনে মেহরানের শিষ্য ছিলেন.তাদের সূত্রে তিনি হাদীসশাস্ত্রে হযরত আবু বক্কর সিদ্দীক (রা:)উত্তরাথিকার হয়েছেন সেই নকশার সনদ ছবি আকারে লিখেপ্রকাশ করলাম-

১ম খলীফা ১ম পদ্ধতি:- হযরত আবু বক্কর সিদ্দীক (রা:)+হযরত আয়েশা সিদ্দিকা (রা:)+কাসেমবিন মুহাম্মদ বিন আবু বক্কর+ইমামেআযম আবু হানিফা (:)
১ম খলীফা ২য় পদ্ধিত:-হযরত আবু বক্করসিদ্দীক +আব্দুর রহমানবিন আবু বক্কর+মাইমুন ইবনে মেহরান+ইমামে আযম আবু হানিফা (:)

১ম পদ্ধতির তাহকীক বা যাচাই :-হযরত কাশেম ইবনে মুহাম্মদ (ওফাত-১০৮হি:)সরাসরি তার ফুফু উম্মুল মুমিনীন হযরত মা আয়শাসিদ্দীকা (রা:) থেকেবর্ণনা করেন এবং ইমামে আযম তার থেকে বর্ণনা করেন.এভাবেই ইমামে আযম একই সময়ে প্রিয়রাসূল হযরতআবু বক্কর সিদ্দীকের পারিবারিক জ্ঞ্যনের উত্তরাথিকারী হয়ে গেছেন.ইমাম ইবনেদাউদ বলেন, আমি ইমাম আবু হানিফা থেকে জিজ্ঞেস করেছিআপনি কোন প্রখ্যাত ইমামের শিষ্যত্ব প্রহণ করেছেন? তিনি বলেন-কাসেম,সালেম.তাউস অন্যান্য ইমামগণের থেকে.

২য় পদ্ধতির তাহকীক বা যাচাই :-ইমাম আইয়্যুব মাইমুন ইবনে মেহরানকে (ওফাত-১১৭ হি:)জযীরার নির্ভরযোগ্য হাদীসের হাফেজদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়.তিনি সরাসরি হযরতআবু বক্কর সিদ্দীকের সন্তান হযরত আব্দুর রহমান থেকে বর্ণনা করেন এবং ইমামেআযম তার থেকেহাদীস বর্ণনা করেন.
আর এভাবেই তিনি আবু বক্কর (রা:)হাদীসের উত্তরাধিকার সাবাস্ত হন-সুবাহানাল্লাহ.পরিশেষে আমি অধম টুকুইবলতে চায় যাকেআল্লাহ সুবাহানু তাআলা এত ইলম হাসীলের উপায় খুলে দিয়েছেন যা অন্য কোনইমামের ভাগ্যে হযনিযার ফলে পৃথিবীতে আজো মুসলিমদের মধ্যে সবচযে বেশী হানাফী মাযহাবের অনুসারী-আমরাসকল মাযহাবের ইমামকে প্রাণ পণে শ্রদ্ধা করি এবং আমরাগর্বিত এমন মহানইমামের অনুরসারী হয়ে আল্লাহ রাসূল কে ডাকতে পারছি-আল্লাহ আমিন-প্রচারে-মোখলেছিয়া সূন্নী খানকা শরীফ
সূত্র-
.বুখারী-আত তারিখুল কবীর-/১৫৭
.যাহাবী-তাযকেরাতুল হুফফায-:৯৬
.হাসকাফী-মুসনাদে ইমামেআযম-পৃ:-১৮৯-হা:-৩৮৭
.ইবনে মনজবীয়া-রিজালূ মুসলিম:-/৪০১
.মিযযী-তাহযীবুল কামাল-১৬/৫৫৭
.ইবনে আবী হাতেম: আল জারহ ওয়াততাদীল-/২৩৩
মূল-সূত্র-ইমামে আযম আহলে বায়ত থেকেহাদীস গ্রহণ-শায়খুল ইসলাম : তাহেরুল কাদেরী