হারামকে হালাল বলা অথবা হালালকে হারাম বলা কুফরী | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

হারামকে হালাল বলা অথবা হালালকে হারাম বলা  কুফরী

▪ দলিল> শরহে আকাঈদে নছফী, ফিকহে আকবর ও আকাঈদে হাক্কাহ কিতাবে হাদীস শরীফের উদ্ধৃতি দিয়ে এসেছে>

"ইছতিহলালি হারামী হালালুন ওয়াছতিহরামী হালালী হারামুন কুফরুন।
অর্থাৎ যদি কেউ হারামকে হালাল বলে অথবা হালালকে হারাম বলে তবে সে কাফির হবে।" (কোরআন সুন্নাহকে অস্বীকার করার কারনে)

▪ এছাড়া ইমাম ছামারকান্দী রাহমাতুল্লাহি আলাইহি তিনি ১টা কিতাব লিখেছেন যেটার নাম হলো তানবীহুল গাফিলীন। ১২০০বছর আগে। তিনি হানাফী মাযহাবের ১জন মুজতাহীদ ছিলেন। তিনি এই তানবীহুল গাফিলীন কিতাবে লিখেছেন>

"ইজা ছরাল উলামায়ু আকালাতাল হারাম ফা ছরাল আওয়ামু কুফফারা।
অর্থাৎ যখন আলীমগন হারাম ভক্ষনকারীতে পরিনত হবে তখন সাধারন মানুষেরা কাফিরে পরিনত হবে।"

কারন যখন কোন আলেম হারাম কাজ করে তখন সে কিন্তু সেটা হারাম জেনেই করে এজন্য সে হবে ফাসিক। আর সাধারন মানুষ মনে করবে আলীম হালাল বলেই তো এটা করছে তখন তারা ঐ হারামটাকে হালাল মনে করার কারনে কাফির হবে। তাই আমাদের আলীম উলামাদেরকে অবশ্যই হারাম থেকে বিরত থাকতে হবে।