মাসয়ালা | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

প্রশ্নঃ- মেয়েদের হাতে/পায়ে আলতা দেয়া কি হারাম? নামাজ পড়লে কি হবে?

উত্তরঃ
অবশ্যই হারাম না।
আলতা বলুন, বা মেহেদি বলুন, হাত-পা রাঙানোর উপকরণ মেয়েদের জন্য ব্যবহার করা কেবল হালালই নয়, বরং একটা সুন্নাতও। কারণ, রাসুল (স) এটা করতে বলেছেন।
আসুন, হাদিস দেখি-
হিন্দ বিন্তে উকবাহ (রা) [একজন মহিলা সাহাবী] রাসুল (স) এর কাছে এসে বললেন, "আমি আপনার কাছে শপথ নিতে চাই।" তখন রাসুল (স) উত্তর দিলেন, "যাও, আগে হাত রাঙিয়ে এসো।"
{মিশকাত শরিফ}

এক মহিলা রাসুল (স)কে একটি চিঠি দিতে চাইলেন পর্দার আড়াল থেকে। তিনি পর্দার আড়াল থেকে হাত বাড়িয়ে দিলেন। রাসুল (স) বললেন, "এ হাত দেখে বোঝা বোঝা যাচ্ছে না এটা নারীর হাত নাকি পুরুষের হাত।" উত্তর দিলেন সেই মহিলা, "এটা নারীর হাত।" তখন রাসুল (স) বললেন, "যদি নারীর হাতই হয়, তাহলে (নখ?) মেহেদিরাঙ্গা থাকা উচিত।"
{সহিহ আবু দাউদ 28:4154}

এখন আপনি হাতে বা পায়ে যে রকমের রঙই ব্যবহার করুন না কেন, আপনাকে কেবল একটা বিষয় খেয়াল রাখতে হবে যে, সেই রঙ যেন ত্বক-এ আস্তরণ না তৈরি করে। অর্থাৎ, সেটা ভেদ করে যেন পানি পৌঁছাতে পারে। এজন্য অনেকে নেইলপলিশ এর মত উপাদান নিরুৎসাহিত করেন, তবে সেটা হারাম না যতক্ষণ পর্যন্ত আপনাকে নামাজ পড়তে হচ্ছে না। কারণ, এটা আস্তরণ তৈরি করে, আর এর ফলে ওজুর পানি স্তর ভেদ করে স্কিনে পৌঁছাতে পারে না। তাই নামাজ হবে না। তবে নামাজের সময় যদি আপনি ওজু করার জন্য পলিশ উঠিয়ে নেন, তাহলে কোন সমস্যা নেই।কিন্তু তা যদি পরপুরুষকে দেখানোর জন্য হয়ে থাকে তাহলে তা হারাম।