নরম বিবিছানায় বা ফোমের উপর নামাজ পড়া | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

জিজ্ঞাসা–৯২৬আমি সাধারণত খাটের উপর নরম বিছানায় নামাজ পড়ি। একদিন এক বোন বলল, এতে নাকি নামাজ হবে না। কেননা নরম জায়গায় সেজদা দিলে নাকি সেজদা আদায় হয় না। আসলে সঠিকটা কী? জানালে উপকৄ্ত হতাম।–আয়েশা আক্তার লাবিবা। 

জবাব: কম্বল, তোশক, গদি বা এ জাতীয় নরম বিছানায় নামাজ পড়া নিষেধ নয়, তবে সেজদা করার সময় কপাল ও নাক ভালোভাবে লাগাতে হবে, যাতে শক্ত অনুভব হয়। আর যদি সেজদার স্থানটা এতটা তুলতুলে নরম হয় যে, সেজদার সময় চাপ পড়লে মোটেও শক্ত অনুভব হয় না এবং কপালকে চাপ দিয়ে স্থিরভাবে লাগানো যায় না তাহলে তাতে সেজদা করা বৈধ হবে না। সে ক্ষেত্রে এমন স্থানে সেজদা করতে হবে যেন, নাক ও কপালকে ভালোভাবে স্থির রেখে সেজদা করা যায় বা সেজদার স্থানে শক্ত কিছু দিয়ে তার উপর সেজদা করতে হবে। কেননা রাসূলুল্লাহ বলেছেন, 

وَإِذَا سَجَدْتَ فَأَمْكِنْ جَبْهَتَكَ مِنَ الأَرْضِ، حَتَّى تَجِدَ حَجْمَ الأَرْضِ

যখন তুমি সেজদা করবে তখন কপাল ভালোভাবে জমিনের সঙ্গে লাগাবে, যাতে করে জমিনের কাঠিন্য অনুভব হয়। (মুসনাদে আহমাদ ২৬০৪)

ولو سجد على الحشيش أو التين أو على القطن أو الطنفسة أو الثلج إن إن استقرت جبهته وأنفه ويجد حجمه يجوز، وإن لم تستقر لا

‘কোনো ব্যক্তি যদি ঘাস ভুষি তুলা ফোম বা বরফের উপর সেজদা করে এবং তার কপাল নাক তাতে ঠেকে যায় সাথে সাথে শক্ত অনুভব করে তাহলে তার সেজদা হবে। আর শক্ত অনুভব না করলে সেজদা হবে না।’ (হিন্দিয়া ১/৭৭)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী