নবীজী স্বীয় উম্মতকে কিভাবে চিনবেন? | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

কিয়ামতের  ময়দানে উম্মতে  মোহাম্মদীগণের   পরিচয়, মর্যাদা    ও    বৈশিষ্ট্য    থাকবে      আলাদা।    হযরত     আবু  হুরায়রা    রাদিয়াল্লাহু      আনহু     থেকে     বর্ণিত    একখানা হাদিস     শরীফে   আল্লাহর   হাবিব    সাল্লাল্লাহু    আলাইহি  ওয়াসাল্লাম এরশাদ করেন-

ان رسول الله  صلى الله  عليه  وسلم  قال    ان حوضى  ابعد من  ايلة  من   عدن  لهو  اشد  بياضا  من الثلج  واحلى  من العسل باللبن ولانيته اكثر من عدد النجوم وانى لاصد الناس عنه كما يصد الرجل ابل الناس عن حوضه- قالوا يا رسول    الله-   اتعرفنا  يومئذ قال نعم لكم  سيما  ليست لاحد من الامم- تردون على غرا محجلين من أثر  الوضوء- (مسلم)

অর্থ: রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন- নিশ্চয় আমার হাউজের প্রশস্ততা হবে আইলা থেকে  আদন   পর্যন্ত।  (এখানে   আইলা  ও     আদন  দুটি প্রাচীন শহরের নাম।) ইহা বরফের চেয়ে  সাদা   ও দুধ  মিশ্রিত   মধুর   চেয়ে    মিষ্টি   হবে।     এর   পানপাত্র    হবে  নত্ররাজির    চেয়ে     অধিক।     আমি    তা     থেকে    আমার  উম্মতদেরকে   তৃপ্তিসহকারে   পান   করাব।   যেমনভাবে  কোন ব্যক্তি কুয়া থেকে  তার উটকে পানি পান করায়। সাহাবাগণ     বললেন-    ইয়া   রাসূলাল্লাহ-   সে     দিন   কি  আপনি আমাদেরকে চিনতে পারবেন? নবীজি বললেন- হ্যাঁ-  চিনতে   পারবো।   তোমাদের  একটা  বিশেষ  চিহ্ন থাকবে।   যা    অন্য  কোন  উম্মতের  মধ্যে    থাকবে  না। তোমাদেরকে  গুররাম মুহাজ্জালীন  তথা  উজ্জ্বল চেহারা বিশিষ্ট  করে আমার  কাছে প্রেরণ  করা হবে।  আর  এই উজ্জ্বলতা হবে অজুর চিহ্ন স্বরূপ।

এ    প্রসঙ্গে    ফতহুল    বারী     গ্রন্থে    ইমাম     আসকালানী  বলেন-
واصل الغرة لمعة بيضاء تكون فى جبهة الفرس- والمرادبها هنا النور الكائن فى وجوه امة محمد صلى الله عليه وسلم والمحجلين من التحجيل وهو بياض يكون فى ثلاث قوائم من قوائم الفرس والمراد به هنا ايضا نور-

অর্থ: ‘গুররাতুন’ এর   মৌলিক অর্থ  হল সুভ্র,  উজ্জ্বল যা  ঘোড়ার কপালে পরিলতি হয়। এখানে ‘গুররাতুন’ দ্বারা সে  নূরকে  বুঝানো   হয়েছে  যা  উম্মতে    মুহাম্মদীগণের চেহারায় পরিস্পুটিত হবে।

এমনিভাবে   মুহাজ্জালীন   শব্দটি     তাহজীল   শব্দ   থেতে উৎকলিত।    ইহা    এমন   একটি    সুভ্রতা   যা   সাধারণত ঘোড়ার পায়ের মধ্যে পরিলতি হয়। আর  এখানে ইহা দ্বারাও নূর বা উজ্জ্বলতাকে বুঝানো হয়েছে।

সারকথা- ‘গুররাম মুহাজ্জালীন’ অর্থ সুভ্র উজ্জ্বল, চেহারা বিশিষ্ট। অর্থাৎ কিয়ামতের  দিন উম্মতে  মুহাম্মদীগণের চেহারা   অজুর    কারণে   উজ্জ্বল,    চাকচিক্যময়,    নূরানী  হবে।       এটাকে        বলা       হয়         ‘গুররাম       মুহাজ্জালীন’ রাসূলেপাক   সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সে সুভ্রতা  দেখে   দেখে তাঁর উম্মতদেরকে  পরিচয়  করবেন  এবং  তাদেরকে    হাউজ  থেকে  পানি  পান  করাবেন।    দেখুন পরবর্তী হাদিস-

عن ابى هريرة رضى الله تعالى عنه  قال  سمعت رسول الله  صلى الله عليه وسلم- يقول ان امتى يأتون  يوم   القيامة غرا محجلين  من اثر الوضوء فمن استطاع منكم ان يطيل غرته فليفعل- (متفق عليه)

অর্থ:  হযরত   আবু  হুরায়রা   রাদিয়াল্লাহু   আনহু  বলেন- আমি     রাসূলুল্লাহ    সাল্লাল্লাহু     আলাইহি    ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছি, নিশ্চয় কিয়ামতের দিন আমার উম্মতগণ অজুর    কারণে     উজ্জ্বল     চেহারা   বিশিষ্ট    হয়ে   আগমন করবে।     সুতরাং      তোমাদের     মধ্যে    যে    ব্যক্তি     তার উজ্জ্বলতাকে   বৃদ্ধি   করতে     সম    সে   যেন   তাই   করে। (বুখারি-মুসলিম)