হাসসান বিন সাবেতের কসিদা(কালিমা নিয়ে) | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

হাসসান      বিন      সাবিত      রাদিয়াল্লাহু      আনহু      ছিলেন  রাসূলেপাক       সাল্লাল্লাহু      আলাইহি       ওয়াসাল্লাম      এর একজন       প্রিয়      সাহাবি।      তিনি       কাসিদার      মাধ্যমে রাসূলুল্লাহ   সাল্লাল্লাহু    আলাইহি    ওয়াসাল্লাম   এর   শান বর্ণনা     করতেন       এবং     কাফির     মুশরিকদের     জবাব  দিতেন।        এজন্য        রাসূলুল্লাহ       সাল্লাল্লাহু       আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁর জন্য মসজিদে নববীতে পৃথক   একটি মিম্বর  তৈরি  করে    দিয়েছিলেন।  যাতে  তিনি   সেখানে   দন্ডায়মান হয়ে  রাসূল   সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর  শানে     কাসিদা   পাঠ   করতে  পারেন।    নিম্নে  তাঁর একটি কাসিদা তুলে ধরা হল-

وضم الا له اسم النبى الى اسمه
اذا قال فى الخمس المؤذن اشهد-
وشق له من اسمه كى يجله
فذو العرش محمود وهذا محمد-

অর্থ:  আল্লাহতা’য়ালা স্বীয় নামের সাথে তাঁর নবীর নাম যুক্ত     করেছেন।    যেমন      মুয়াযযিন    দৈনিক     পাঁচবার  আশহাদু  বলে আহ্বান  করে। এবং   আল্লাহতায়ালা  স্বীয় নাম থেকে তাঁর নবীর নাম নির্বাচন  করেছেন। অতএব আরশের অধিপতির নাম হল মাহমুদ, আর  নবীর   নাম হল মুহাম্মাদ।

সম্মানিত  পাঠকগণ,  দেখুন   তারেক  মনোয়ার  বলেছে   ‘বিদআতীরা কয়  মুহাম্মাদ খোদা  নেহি, খোদা ছে জুদা নেহি।   এই  কথাটাকে  তারেক   মনোয়ার  শিরক   বলে- নাউজুবিল্লাহ    বলেছেন।    অথচ     সাহাবাদের     আকিদা  ছিল-    আল্লাহ     তাঁর    নামের    সাথে     নবীর    নাম     যুক্ত করেছেন।       যেমন      আযানে,       ইকামতে,      কালিমায়, সবজাগায় আল্লাহর সাথে নবী যুক্ত আছেন।

অতএব  আল্লাহ এবং  মুহাম্মাদ পাশাপাশি  লিখা শিরক নয়।

উপসংহার
=====
পরিশেষে   মহান  আল্লাহর    দরবারে   অসংখ্য   শুকরিয়া যার অশেষ রহমতের বদৌলতে আমি অধম কিতাবটির শেষ পর্যায়ে এসে পৌছেছি।

সম্মানিত পাঠকের খিদমতে আরজ যদি কোথাও কোন ভুলত্রুটি    পরিলক্ষিত    হয়    তাহলে    আমাকে     অবহিত  করবেন।    মহান    আল্লাহর  দরবারে  ফরিয়াদ,  হে   প্রভূ তুমি   আমার  এ    ক্ষুদ্র   কর্মটুকু  ইলমে  দ্বীনের  খিদমতে কবুল    কর।     বাতিল     ফিরকাদের    ষড়যন্ত্রের    ছোঁবল থেকে    আমাদের    ঈমান    আকিদাকে    হেফাযত    কর।  আমিন।

স মা প্ত