তাফসীরে কুরতুবী ও বাহারুল মুহিতে কলেমার বর্ণনা | ইসলামী বিশ্বকোষ ও আল-হাদিস

ইমাম  কুরতুবি  রহমতুল্লাহি  আলাইহি  সূরা  কাউছারের  ‘কাউছার’   শব্দের ১৬টি অর্থ বর্ণনা  করেছেন।   তন্মধ্যে একটি       অর্থ       হল       কালিমার      বাক্য।       দেখুন       মূল ইবারতটি-

الثالث عشر قال   هلال بن يساف هو  لا  اله الا    الله  محمد رسول الله
অর্থ: তেরতম-    হিলাল  বিন  ইয়াসাফ বলেন- কাউছার  অর্থ হল ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ।’

উল্লেখ্য     যে,    হিলাল    বিন     ইয়াসাফ     একজন    বিশ্বস্ত তাবেয়ি    ছিলেন।   হাফিজ    ইবনে   হাজর   আসকালানী  রহমতুল্লাহ     আলাইহি     تهذيب     التهذيب      গ্রন্থে      দীর্ঘ আলোচনা     করেছেন।     নিম্নে     আলোচনা     তুলে     ধরা  হলো-

هلال بن يساف ويقال ابن اساف الا شجعى مولاهم الكوفى ادرك   عليا   وروى   عن   الحسن     بن    على     وابى     الدرداء- ....وغيرهم

قال  اسحاق بن منصور عن  ابن معين    ثقة- وقال العجلى كوفى تابعى ثقة  وذكره   ابن   حبان فى   الثقات- قلت   وقال ابن سعد فى  الطبقة  الثانية   من اهل الكوفة وكان  ثقة كثير الحديث-

অর্থ:   হিলাল  বিন  ইয়াসাফ।  তাকে   ইবনু  ইসাফ  আল আশযায়ীও       বলা       হয়।       তিনি       ছিলেন       আশযায়ী  সম্প্রদায়ের আযাতকৃত ব্যক্তি এবং   কুফি।   তিনি আলী রাদিয়াল্লাহু    আনহু    এর    সাক্ষাত    পেয়েছেন।    হযরত  হাসান বিন আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু হযরত আবু দারদা রাদিয়াল্লাহু আনহুসহ অনেক  অনেক   সাহাবিদের   কাছ থেকে হাদিস বর্ণনা করেছেন।

ইসহাক     বিন     মানসুর     ইবনে     মুয়িন      থেকে      বর্ণনা করেছেন    যে,     তিনি     বিশ্বস্ত    ছিলেন।      আল    আজলী বলেছেন-   তিনি কুফাবাসী, তাবেয়ি  এবং সিকাহ  রাবী ছিলেন।  ইবনে  হাব্বান  তার  সিকাহ  গ্রন্থে  হিলাল  বিন  ইয়াসাফকে উল্লেখ করেছেন- ‘আমি বলব, ইবনু সায়াদ الطبقة الثانية গ্রন্থে বলেছেন- তিনি আহলে কুফা এবং সিকাহ     রাবী     ছিলেন       এবং     অনেক     হাদিস     বর্ণনা  করেছেন। (তাহযিবুত তাহযিব)।

তাফসিরে আল বাহরুল মুহিত
==============
এই কিতাবটির নাম التفسير الكبير  ইহা আল মুহিত নামে  প্রসিদ্ধ।  এর  লিখক  হচ্ছেন  ‘আছির  উদ্দিন  আবু  আব্দুল্লাহ মুহাম্মদ   বিন  ইউসুফ  আল আন্দুলুসী।  তিনি  সূরা  মারইয়ামের   ৮৭    নং   আয়াতের  ব্যাখ্যায়  উল্লেখ করেন-

لا يملكون الشفاعة الا من اتخذ عند الرحمن عهدا
অর্থ: যে   ব্যক্তি দয়াময় আল্লাহর  কাছ থেকে প্রতিশ্রুতি গ্রহণ  করেছে   সে   ব্যতীত   আর   কেউ  সুপারিশ  করার অধিকার পাবে না। উক্ত আয়াতের ব্যাখ্যায় বলেন-

والعهد  هنا- قال ابن عباس-  لا  اله  الا الله  محمد رسول   الله وفى الحديث من قال لا اله الا الله محمد رسول الله كان له عند الله عهد

অর্থ: হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন-   এখানে     ‘আহাদ’  বা  অঙ্গিকার  অর্থ   হল-   ‘লা  ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ।’

যেমন   হাদিসশরীফে   বর্ণিত হয়েছে- ‘যে  ব্যক্তি  বলল- ‘লা    ইলাহা   ইল্লাল্লাহু    মুহাম্মাদুর   রাসূলুল্লাহ’    আল্লাহর নিকট তার একটি অঙ্গিকার হয়ে গেল।